Entertainment

অন্যতম স্বাধীনতা সংগ্রামী বাংলার ক্ষুদিরাম ক্রিমিনাল বোর্ডে, জি-ফাইভ এর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ বাংলাপক্ষের

ওয়েব সিরিজে ক্ষুদিরাম আসামিদের মাঝে, শোরগোল সোশ্যাল মিডিয়ায়

দেবশ্রী কয়াল : দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের মধ্যে অন্যতম ক্ষুদিরাম বসু, কিন্তু এক ওয়েব সিরিজে মোস্ট ওয়ান্টেড ক্রিমিনালের বোর্ডে রয়েছে ক্ষুদিরাম এর ছবি। আর তার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে চড়েছে প্রতিবাদের সুর। জি ফাইভের ওয়েব সিরিজ অভয় ২ তে দেখা গিয়েছে এমন দৃশ্য। আর এই ঘটনার জন্যে জি ফাইভ কর্তৃপক্ষকে আইনি নোটিশ দিয়েছে বাংলাপক্ষ। এছাড়া জি-এর সল্টলেকের অফিসে গিয়েও প্রতিবাদ জানান বাংলাপক্ষের কর্মকর্তারা। কারন এমন ঘটনাকে কখনই মেনে নেওয়া যায় না বলে তাঁদের বক্তব্য।

জি ফাইভের অনলাইন প্লাটফর্মে সম্প্রচারিত একটি ওয়েব সিরিজ হল ‘অভয়’। যার দ্বিতীয় সিজনের দ্বিতীয় পর্বের একটি দৃশ্যে একটি বোর্ডে সকল কুখ্যাত দাগী আসামিদের ছবি দেখতে পাওয়া যায়। আর সেই বোর্ডেই দাগী আসামিদের মাঝে দেখতে পাওয়া যায় এক স্বাধীনতা সংগ্রামীকে। যিনি মাত্র তাঁর ১৮ বছর বয়সে দেশকে স্বাধীন করার লক্ষ্যে প্রাণ দিয়েছিলেন। আর সেই বাংলার গর্ব, বাংলার অন্যতম যোদ্ধা ক্ষুদিরাম বসু কিনা শেষ পর্যন্ত স্থান পেলেন দাগি আসামিদের তালিকার মাঝে? এই ঘটনা সামনে আসতেই জি-ফাইভ কর্তৃপক্ষ এবং এই সিরিজের পরিচালক কে.এন. ঘোষের বিরুদ্ধে ক্ষেপে ওঠে বাংলা। এই ঘটনার প্রতিবাদে এগিয়ে আসে বাংলাপক্ষ। এছাড়াও ইন্টারনেট দুনিয়াতেও পড়ে যায় শোরগোল। মানুষ জানান এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ।

এছাড়া বাংলাপক্ষ সোশ্যাল মিডিয়াতে জি-ফাইভ কর্তৃপক্ষকে ট্যাগ করে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে। এরপর চাপে পড়ে তারা ক্ষমাও চেয়েছে। বাংলা পক্ষ জানিয়েছে, ‘এই ঘটনা ক্ষুদিরাম বসুর বলিদানকে ছোট করছে আর কেবল তাই না তাঁর সম্মানকেও কিন্তু ওই কর্তৃপক্ষ ক্ষুণ্ন করছে। শুধু তাই নয় একটা গোটা জাতির বিরুদ্ধেও বিদ্বেষ উগড়ে দিচ্ছে এই ওয়েব সিরিজ। তাই এই ঘটনার বিরুদ্ধে তাঁরা আইনানুসারে ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছে বাংলার বিভিন্ন থানায়। সাথে বাংলা পক্ষর তরফ থেকে জি-ফাইভ কর্তৃপক্ষ এবং পরিচালক কেএন ঘোষকে আইনি নোটিশও দেওয়া হয়েছে।’

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: