Nation

অপেশাদার সেনার পরিচয় দিল চিন, লাঠি, পাথর নিয়ে তেড়ে এলো ভারতীয় সেনার দিকে

১০ ভারতীয় সেনাকে অস্ত্রসহ আটক করেছিল চীনা সেনারা।

প্রেরনা দত্তঃ নিজেদের পেশাদার বলে দাবি করে চিনের সেনা। পেশাদারি মনোভাবের এই উদাহরণ! সপ্তাহ দুয়েক আগে লাদাখের প্যাং গং লেকের সামনে দুই দেশের সেনাবাহিনীর বচসা বাঁধে। সেই সময় নাকি চিনের সেনা জওয়ানরা ভারতীয় সেনাদের দিকে লাঠি, পাথর নিয়ে তেড়ে এসেছিল।

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবের মধ্যেই সপ্তাহ দুয়েক আগে উত্তর-পূর্ব সীমান্তে মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধে চীনা ও ভারতীয় সেনাদের মধ্যে। সে সময় ১০ ভারতীয় সেনাকে অস্ত্রসহ আটক করেছিল চীনা সেনারা। যদিও ভারতীয় বাহিনীর তরফে সেই দাবি অস্বীকার করা হয়েছে। এ বার জানা গেল, ভারতীয় সেনাদের দিকে লাঠি ও মুগুর নিয়ে তেড়ে এসেছিল চীনা সেনারা। ভারতীয় গণমাধ্যম এনএনআই-এর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পাকিস্তানে মদতে কাশ্মীরে যারা পাথর ছোঁড়ে, তাদের মতই ব্যবহার করেছে চিন। লাঠি, মুগুর, কাঁটাতার আর পাথর নিয়ে এসেছিল চিনা সেনা। ওই সূত্র আরও জানাচ্ছে যে সংঘাত চলাকালীন অকারণ ঔদ্ধত্য দেখাচ্ছে চিন। ভারতীয় সেনার সঙ্গে চরম অপেশাদারের মত ব্যবহার করেছে।

সংবাদসংস্থা এএনআই—এর তরফে জানানো হয়েছে, উত্তেজনা চলাকালীন চিনের সেনারা পাড়ার গুন্ডাদের মতো ব্যবহার করেছে। এমনকী, কাশ্মীরের পাথরবাজদের সঙ্গে তাদের কোনও ফারাক ছিল না। লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের কাছে লাদাখে চিনের প্রায় ২৫০ সেনা প্রথমে ঔদ্ধত্য দেখায়। এর পর পাথর, লাঠি নিয়ে তেড়ে আসে। এর আগেও চিনের সেনার এমনভাবে তেড়ে আসার ঘটনা ঘটেছে। এর আগে ডোকলামে দুই দেশের সেনার মধ্যে বচসা বেঁধেছিল। তবে এবারের পরিস্থিতি আরও বেশি উত্তপ্ত বলে জানা যাচ্ছে।

প্রাক্তন আর্মি কমান্ডার লেফট্যানেন্ট জেনারেল ডিএস হুদা বলেন, ‘এটা মোটেই স্বাভাবিক ঘটনা নয়। বিশেষ গালোয়ান ভ্যালিতে এভাবে চীনা সৈন্যের আনাগোনা বেশ উদ্বেগের বলে উল্লেখ করেছেন তিনি, কারণ ওই অঞ্চল নিয়ে দুই দেশের মধ্যে কোনো বিতর্ক নেই। অথচ সেখানেই সৈন্য মোতায়েন করেছে চীন।’

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: