Nation

আরও একবার কুসংস্কারাচ্ছন্ন ভারতের ছবি দেখা গেল ওড়িশায়, করোনার বিনাশে নরবলি দিল ওড়িশার পুরোহিত

তাকে নাকি দেবীই বলেন, নরবলি দিলেই বিশ্ব থেকে করোনা ঘুচে যাবে।

প্রেরনা দত্তঃ অতিমারি করোনাভাইরাসের বিনাশে দেবতাকে তুষ্ট করতে হবে। তার জন্য চাই নরবলি। এমনটাই নাকি স্বপ্নাদেশ পেয়েছিলেন। সেই আদেশ মতো মন্দির ভিতরেই কুড়ুল দিয়ে এক ব্যক্তির মাথা কেটে বলি দিলেন পুরোহিত। ওড়িশার কটকে এক স্থানীয় মন্দিরের বৃদ্ধ পুরোহিতের বিরুদ্ধে এমনটাই অভিযোগ উঠেছে। পেশায় পুরোহিত ওই ব্যক্তি মন্দিরে নিজে হাতে গলা কাটল বছর ৫৫-র একজনের।

পুলিশ সূত্রের খবর, সনসারি ওঝা নামে ওই ব্যক্তি ওড়িশার কটকের বান্ধাহুদা এলাকার ব্রহ্মাণী মন্দিরে পৌরহিত্য করত। ওই ব্যক্তির দাবি, ঈশ্বরের আদেশেই সে এই কাজ করেছে। তাকে নাকি দেবীই বলেন, নরবলি দিলেই বিশ্ব থেকে করোনা ঘুচে যাবে।

ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় তাজ্জব সমাজের বিভিন্ন মহল। করোনা মহামারির মধ্যেও কুসষ্কার নিয়ে সরব হয়েচেন সমাজকর্মীরা।অভিযুক্ত পুরোহিত বছর ৭২-র সানসারি ওঝা বাঁধা মা বুধা ব্রাহ্মণি দেই মন্দিরের পুরোহিত বলে জানা গেছে। বুধবার এই হত্যাকাণ্ডের পর তিনি নিজেই পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেন বলে খবর। নিহত ব্যক্তির নাম সরোজ কুমার প্রধান (৫২)। এদিকে হত্যাকান্ড নিয়ে অভিযুক্ত পুরোহিতকে জিগ্যেস করা হলে তিনি জানান, ‘কোরবানি’ নিয়ে মন্দিরে তার ও সরোজের মধ্যে তর্ক শুরু হয়েছিল। তর্ক বাড়তে থাকায় ওঝা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে বলে জানা যাচ্ছে। মাথায় আঘাত পেয়ে ওই ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

কটকের ডিআইজি (সেন্ট্রাল রেঞ্জ) আশিসকুমার সিংহ জানিয়েছেন, সরোজের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ওই তিনি বলেন, ‘‘প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে ঘটনার সময় মত্ত অবস্থায় ছিলেন সংসারী ওঝা। পরের দিন সকালে তাঁর হুঁশ ফিরলে পুলিশের কাছে এসে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। খুনের কথা স্বীকারও করে নিয়েছেন সংসারী।’’ সূত্রের খবর, মৃত ব্যক্তির সঙ্গে একটি আমবাগান নিয়ে ওই পুরোহিতের দীর্ঘ শত্রুতা ছিল।মন্দির থেকে অস্ত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: