Big Story

আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মরণঝাঁপ চিকিৎসকের!

শুক্রবার সকাল ১১টা নাগাদ হাসপাতালের এমারজেন্সি বিভাগের ছয় তলা থেকে ওই মেডিক্যাল ছাত্রীকে পড়ে যেতে দেখেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

প্রেরনা দত্তঃ রাজ্যজুড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে মারণ করোনা ভাইরাস। যার ফলে চাপ সৃষ্টি হয়েছে স্বাস্থ্য পরিষেবার উপরেও। রাজ্যে দ্রুত গতিতে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও।করোনা আতঙ্ক নিয়ে যখন হাসপাতাল জেরবার, তার মধ্যেই আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রহস্যজনক মৃত্যু হল এক চিকিৎসকের। প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, ওই চিকিৎসকের নাম পৌলমী সাহা। তিনি স্নাতকোত্তর পাঠক্রমের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। শুক্রবার সকাল ১১টা নাগাদ হাসপাতালের এমারজেন্সি বিভাগের ছয় তলা থেকে ওই মেডিক্যাল ছাত্রীকে পড়ে যেতে দেখেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন পৌলমীর ফিভার ক্লিনিকে ডিউটি ছিল। প্রত্যক্ষদর্শী জানান, “হঠাত্ জোরে একটা কিছু পড়ে যাওয়ার শব্দ শুনলাম। প্রথমে দেহটি কার্নিসে লাগে, তারপর রেলিংয়ে ধাক্কা খেয়ে মাটিতে আছড়ে পড়ে। বোধহয় কার্নিসে লাগার সময়ই আওয়াজ শুনতে পেয়েছিলাম।”
হাসপাতাল সূত্রে খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই পৌলোমী মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। শিশু বিভাগের সিক নিওনেটাল কেয়ার ইউনিটে তিনি ডিউটি করতেন। তার মানসিক অবসাদে ভোগা নিয়ে পরিবারকেও জানানো হয়েছিল।

ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে টালা থানার পুলিশ। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমান, জরুরী বিভাগের ছাদ থেকে পড়ে গিয়েছেন তিনি।তদন্তকারীদের অনুমান, আত্মহত্যা করেছেন ওই চিকিৎসক। তবে পুলিশ অন্য দিকগুলোও খতিয়ে দেখছে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: