Economy Finance

আয়কর বাড়ানোর দেওয়া হয় সুপারিশ, তবে স্পষ্ট না কেন্দ্রের

এমন সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে আয়কর এর খবর সৃষ্টি করেছিল বিভ্রান্তি

@ দেবশ্রী : করোনার জেরে সারা বিশ্ব হয়ে রয়েছে স্তব্ধ। তার সংক্রমণ রুখতেই চলছে লকডাউন। কিন্তু তার জেরেই বেহার অর্থনটির দশা। এমন অবস্থায়, কর বাড়ানোর প্রস্তাব ঘিরে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছিল মানুষের মধ্যে। তবে সেই প্রস্তাবকে ‘অসদাচরণ’ বলে উল্লেখ করে নাকচ করল কেন্দ্র।

জানা গিয়েছিল, ভারতীয় রাজস্ব পরিষেবার কিছু আধিকারিক কর বাড়ানোর ব্যাপারে অর্থ মন্ত্রককে সুপারিশ দেয়। এরপর সেই সুপারিশ প্রকাশ্যে ফাঁস হয়ে যাওয়ার পরেই করোনা আবহের মধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে। তারপরেই আসরে নামে কেন্দ্র। বলা হয়, এমন কোনও সুপারিশ পাঠানোর অধিকার ওই কর্তাদের নেই। এমনকি অর্থমন্ত্রক এই ধরনের সুপারিশকে ‘উশৃঙ্খল আচরণ’ বলেও তোপ দাগে।

কিন্তু কী ছিল ওই বিতর্কিত প্রস্তাবে? করোনার জেরে রাজস্ব খাতে যথেষ্ট ঘাটতি রয়েছে। সেই ঘাটতি মেটাতে করোনা পরবর্তী পর্যায়ে ধনীদের আয়ের ওপর ৪০% কর বসানো, মহামারি সেস ধার্য করা, বিদেশি সংস্থাগুলোর ওপর আরও বেশি কর্পোরেট কর বসানো ইত্যাদি সুপারিশ জায়গা পেয়েছিল ওই প্রস্তাবে। যদিও জানা যাচ্ছে এতে চটেছে কেন্দ্র।

সূত্রের খবর, যে আধিকারিকরা এই প্রস্তাব পেশ করেছেন, সেই আমলারা নিজেদের টিম ফোর্স বলে উল্লেখ করেছেন। তবে এই সুপারিশ যে কোনওভাবেই মানা হবে না, তা কার্যত স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র। অর্থমন্ত্রকের বক্তব্য, এই সুপারিশ মানা হলে চাপ পড়বে জনগণের ওপরেই। তাই এই সুপারিশ মানা সম্ভব না। কিন্তু এই আধিকারিকরা কেন এমন সুপারিশ পাঠালো সেই নিয়ে ভবিষ্যতে হবে জিজ্ঞাসাবাদ।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: