Nation

এ কেমন মন্ত্রী ? ঘৃণা বর্ষিত হোক।এই মন্ত্রীর বহিষ্কার কেন নয় : বলবেন নীতিশ সরকার ?

এ কী প্রশ্ন স্বাস্থ্যমন্ত্রীর? ‘ক’টা উইকেট পড়েছে?’ শিশুমৃত্যু নিয়ে সাংবাদিক বৈঠকে মজা করলেন, শিশু মৃত্যুটা মজার ব্যাপার তো ! প্রশ্নের মুখে নীতিশ কুমার সরকার, জন বিক্ষোভ তৈরী হচ্ছে। যারা শিশু অধিকার নিয়ে কাজ করেন তারা চুপ কেন ? প্রশ্নও উঠছে।

বিতর্কে জড়ালেন বিহারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী এনসেফেলাইটিসে শিশুমৃত্যু নিয়ে সাংবাদিক বৈঠকে ভারত-পাক ক্রিকেট ম্যাচের হাল জানতে চেয়ে। বিহারের ১২টি জেলার ২২২টি ব্লকে অ্যাকিউট এনসেফেলাইটিস সিনড্রোমের সংক্রমণ অব্যাহত। বিগত ১৬ দিনে এনসেফেলাইটিসে মুজফ্ফরপুর ও সংলগ্ন এলাকায় মৃত্যু হয়েছে একশোরও বেশি শিশুর। তিনশোরও বেশি শিশু এনসেফেলাইটিসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।এনসেফেলাইটিসে বিহারের পরিস্থিতি ক্রমশ আরও উদ্বেগজনক হয়ে উঠছে। আর এই পরিস্থিতিতে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচের খবর জানতে চেয়ে বিতর্কে জড়ালেন বিহারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পাণ্ডে।

বিহারের স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন, স্বাস্থ্যপ্রতিমন্ত্রী অশ্বিনী কুমার চৌবে রবিবার রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পাণ্ডেকে সঙ্গে নিয়ে মুজফ্ফরপুরে জরুরি বৈঠক করেন। এই বৈঠকের পর এনসেফ্যালাইটিস নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছেন। বিহারের মুজফ‌্ফরপুরকে এনসেফ্যালাইটিসের প্রকোপ থেকে উদ্ধার করতে সরকার কী পদক্ষেপ করেছে এবং কী পদক্ষেপ করতে চলেছে তাই নিয়েই গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। সাংবাদিকদের সঙ্গে হর্ষ বর্ধনের এই আলোচনার মধ্যে আচমকা বিতর্কিত প্রশ্নটা করে বসেন বিহারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ‘পাকিস্তানের ক’টা উইকেট পড়েছে?’ যার উত্তরে ওই সাংবাদিক জানান, ‘চার উইকেট’। বৈঠকের বাকি অংশের মতো ক্যামেরা-বন্দি হয়ে যায় এই ঘটনাটিও। আর এই ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়তেই জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে বিহারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পাণ্ডেকে নিয়ে।

এই ঘটনায় বিরোধীদের কড়া সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে মঙ্গল পাণ্ডেকে এবং পাশাপাশি মঙ্গল পাণ্ডের এই মন্তব্য ঘিরে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলে। বিরোধীদের প্রশ্ন, এনসেফ্যালাইটিসের মতো এমন একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, রাজ্যে যখন এনসেফেলাইটিসে মৃত্যু মিছিল অব্যহত, যেখানে বিহারের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন দিল্লি থেকে বিহারে ছুটে এসেছেন, সেখানে রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচের খবর জানার আগ্রহ বেশি? আরজেডি নেতা রাম চন্দ্র বললেন, “রাজ্যের এই রকম পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নজর খেলার দিকেই বেশি। এমন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিহারে থাকলে রাজ্যের স্বাস্থ্যের হাল খারাপ হবে, সেটাই স্বাভাবিক।” এমন ‘অসংবেদনশীল’ হওয়ায় জন্য কংগ্রেস, আরজেডি, হিন্দুস্তান আওয়াম মোর্চা, সমস্ত বিরোধী দলই একযোগে তাঁর ইস্তফা দাবি করেছে। টুইট করেন হিন্দুস্তান আওয়াম মোর্চার মুখপাত্র দানিশ রিজওয়ান – ‘এনসেফ্যালাইটিসে আক্রান্ত মৃত্যুর সঙ্গে লড়তে থাকা শিশুরা নয়, রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অগ্রাধিকার ক্রিকেট।’

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: