Analysis

কবে শীর্ষে পৌঁছবে করোনা সংক্রমণ,কি বলছে আইএসিএসের গবেষকরা দেখে নিন…

এখনও পর্যন্ত দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৯৪৪০ এবং মৃত্যু হয়েছে ১৬৯৫ জনের

প্রেরনা দত্তঃ ক্রমশ উদ্বেগ বাড়াচ্ছে ভারতের করোনা পরিস্থিতি।ক্রমশই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। দেশের বর্তমান পরিস্থিতির বিচারে জুনের তৃতীয় সপ্তাহেই করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ছাড়াতে পারে ১.৫ লক্ষ, এমনটাই দাবি করলেন আইএসিএসের গবেষকরা। তাঁরা আরও জানান, দেশে যদি লকডাউন না হত তবে মে মাসের শেষেই সর্বোচ্চ হত সংক্রমণের সংখ্যা। তবে লকডাউন কার্যকর করলে এবং পর্যাপ্ত নমুনা পরীক্ষা হলে সংক্রমিতের সংখ্যা ৭০ হাজারে নেমে আসতে পারে, জানালেন গবেষকরা।

এখনও পর্যন্ত বিশ্বে আড়াই লক্ষের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত ৩৬ লক্ষের বেশি। তবে এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১২ লক্ষ ৪৫ হাজারের বেশি মানুষ। আর তার মধ্যেই লাফিয়ে বাড়ছে ভারতের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কোনও ভাবেই রাশ টানা যাচ্ছে না আক্রান্তের সংখ্যায়। আর সেই সঙ্গে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয় জাঁকিয়ে বসছে ভারতের বুকে। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৯৪৪০ এবং মৃত্যু হয়েছে ১৬৯৫ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪১৫৩ জন।

কিন্তু এর মধ্যেই সিঙ্গাপুরের বৈজ্ঞানিকরা বলছেন অন্য কথা। তাদের মতে ভারতে করোনা সংক্রমণ কমবে ২২ মে। অন্যদিকে গোটা দেশে ডিসেম্বর পর্যন্ত থাকবে এর প্রকোপ। অঙ্কের একাধিক মডেল প্রস্তুত করে এই প্রশ্নের উত্তর দিলেন তাঁরা। সাসেপটিবল–ইনফেক্টেড–রিকভর্ড (এসআইআর) মডেল।

সংক্রমণের ধরণ অনুযায়ী, একেকটি দেশের জন্য আলাদা আলাদা তারিখ দেওয়া হল। সিঙ্গাপুরের বৈজ্ঞানিকরা জানালেন, সম্প্রতি কিছু সপ্তাহ ধরে দেখা যাচ্ছে সংক্রমণ বাড়ার হার ৪.৫ শতাংশে এসে স্থির হয়েছে। সংক্রমণ বাড়ার হার স্থিতাবস্থায় এসে গেলে সংক্রমণ বন্ধ হওয়ার সময় সম্পর্কে ধারণা করা যায়। এছাড়া তঁরা জানিয়েছেন, ১ জুনের মধ্যে দেশে করোনার প্রভাব ৯৯ শতাংশ কমে যাবে। আর ২৬ জুলাই নাগাদ ভারতবর্ষ করোনা নির্মূল হয়ে যাবে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: