Health

করোনায় মৃত্যুর হার সবচেয়ে কম ভারতে, দাবি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে প্রায় আড়াই হাজার সংক্রমণ।

প্রেরনা দত্তঃ করোনা মোকাবিলায় একনাগাড়ে প্রায় ৬ সপ্তাহের লকডাউনের মধ্যেও ভারতে দৈনিক করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি নয়া আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধিতেও দৈনিক কার্যত নজির সৃষ্টি হচ্ছে। এই পরিস্থিতির মধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন দাবি করলেন, বিশ্বের মধ্যে ভারতেই মৃত্যুর হার সবচেয়ে কম। আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ার সময়ের ব্যবধানও বেড়েছে। অর্থাৎ আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হতে সময় লাগছে কম। হর্ষবর্ধন আরও বলেন, করোনা আক্রান্তরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন।

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে প্রায় আড়াই হাজার সংক্রমণ।যার ফলে রবিবার ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজারের গণ্ডি ছাড়িয়ে গিয়েছে।মৃতের সংখ্যাও ১ হাজার৩০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে।শনিবারই ভারতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যায় বড় লাফ লক্ষ্য করা গিয়েছিল।এই প্রবণতা অব্যহত রয়েছে।

রবিবার দিল্লির লেডি হার্ডিঞ্জ হাসপাতাল পরিদর্শনে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় কেমন প্রস্তুত ওই হাসপাতাল, তা খতিয়ে দেখেন তিনি।কথা বলেছেন চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে।লকডাউন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, রেড, অরেঞ্জ ও গ্রিন জোনে ভাগ করে আলাদা পরিকল্পনা,এই সব পদক্ষেপের জেরে অন্যান্য বহু দেশের তুলনায় ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা কম।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কত দ্রুত বাড়ছে, বা সংক্রমণের প্রবণতা নির্ধারণ করতে আক্রান্তের সংখ্যা কত দিনে দ্বিগুণ হচ্ছে, তাকে গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে ভারতে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকও প্রতি সপ্তাহে সেই দ্বিগুণ হওয়ার সময় নির্ধারণ করছে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: