Nation

করোনা ভয় : ভারতও মৃত্যুপুরীতে পরিণত হবেনাতো !

দেশে জুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ২৬,৯১৭

পল্লবী : দ্বিতীয় দফার লকডাউনের চলতি চতুর্থ সপ্তাহ কিন্তু সংক্রমণের হার কম তো দূরের কথা বাড়ছে দ্রুত গতিতে। রবিবারের পর্যন্ত তথ্য অনুযায়ী কেন্দ্রীয়মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ১৯৭৫। শুক্রবার সন্ধ্যায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৭৫২ সেখানে একধাক্কায় এই সংখ্যাটা সেই আক্রান্তের সংখ্যার চেয়েও বেশি । সররকারি পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে সারা দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ২৬,৯১৭ । শনিবার রাত থেকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৪৭ জনের । ফলে সারা দেশে মোট মৃতের সংখ্যা ৮২৬ ।

সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ৬১৮৫ জন মানুষ । আর সারা দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২০,১৭৭ । সরকারি আধিকারিকদের মতে ভারতীয়দের সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা একটা ভালো লক্ষণ । গত দশদিনে সুস্থ হয়ে ওঠার পরিসংখ্যানটা ১২ শতাংশ বেড়েছে । রবিবার দিন আক্রান্তের সংখ্যা এক ধাক্কায় বেড়েছে মহারাষ্ট্র ও গুজরাতে হঠাত্‍ করে সংখ্যাটা ভীষণ বেড়ে যাওয়ায় ষ এই দুটি রাজ্যই এই মুহূর্তে ভারতে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত রাজ্য ।

এই মুহূ্র্তে মহারাষ্ট্রে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭৬২৮, দ্বিতীয় স্থানে থাকা গুজরাতে আক্রান্ত ৩০৭১, তিনে রয়েছে দিল্লি সেখানে আক্রান্ত ২৬২৫ । রাজস্থান (২০৮৩), মধ্যপ্রদেশ (২০৯৬), উত্তরপ্রদেশ (১৮৪৩) ,তামিলনাড়ু (১৮২১), অন্ধ্রপ্রদেশ (১০৯৭), তেলেঙ্গানা (৯৯১) । রবিবারের ৪৭ টি মৃত্যুর ২২ টি মহারাষ্ট্রে, ৮ টি রাজস্থানে, ৭ টি মধ্যপ্রদেশে, ৬টি গুজরাতে, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, কাশ্মীর, তামিলনাড়ুতে একটি করে মৃত্যু স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে ।

এর সাথে সাথে যে বিষয়টি লক্ষণীয় তা হলো দিল্লিতে প্রথম প্লাজমা থেরামি ব্যবহার করা যায় এবং তাতে মেলে সুফল ও। আর চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন এই ব্যবহারের সাহায্যে সুস্থ করা যাবে অধিক সংখ্যক মানুষ কে। তাই যতদিন না ভ্যাকসিন আসছে ততদিন প্লাজমা থেরাপিই ভরসা।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: