Nation

ক্রমশ ছড়াচ্ছে করোনা আতঙ্ক, ভয়ের আঁচ সর্বত্র।

বেড়েই চলেছে মৃতের সংখ্যা, বন্ধ করা হচ্ছে চীনের সাথে সীমান্ত সম্পর্ক।

@ দেবশ্রী : সারা বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে গেছে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, ভারতের দুজন ! মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-র পক্ষে থেকে জানা গেছে, তাদের দেশে আক্রান্তের সংখ্যা কমপক্ষে এগারো। আর এই ভাইরাসের যে জন্মস্থান চীন, সেখানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৬০ ! ও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে সতেরো হাজার।

আন্তর্জাতিক একটি সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে রবিবার পূর্ব চিনের ওয়েনঝাউয়ের রাস্তাঘাট বন্ধ করে দিয়েছে সরকার, কোনো লোকজনকে ঘর থেকে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না।

হুবেইয়ের রাজধানী ইউহান থেকে সর্ব প্রথম এই ভাইরাস ছড়াতে শুরু করে। এখন চিনের সব প্রান্ত তো বটেই, এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে সারা বিশ্ব্বে। করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক এখন বিশ্বজুড়ে। এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পরে আন্তর্জাতিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। এরপরেই বিশ্বের সব দেশই তাদের নাগরিকদের ইউহান থেকে নিজেদের দেশে ফেরাতে শুরু করেছে। আর তাদের জন্য নিচ্ছে বিশেষ ব্যবস্থা।

এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির সাথে মোকাবিলা করার জন্য দশ দিনের মধ্যে একটি এক হাজার শয্যার হাসপাতাল চালু করে দিয়েছে চিন, আরও একটি দেড় হাজার শয্যার হাসপাতাল তারা চালু করতে চলেছে বলেই জানা যাচ্ছে।

ফিলিপিন্সে রবিবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হতেছে একজনের। চিনের বাইরে কোনও দেশে করোনা ভাইরাসে এটাই প্রথম মৃত্যু। স্বভাবতই আতঙ্কিত এই দ্বীপরাষ্ট্রটিও। তারই সাথে আতঙ্কিত অন্য দেশ গুলিও। আর যে পরিমানে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে আরও যেন আতঙ্ক বেড়েই চলেছে। ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত দ্বিতীয় ব্যক্তির সন্ধান মিলেছে কেরলে। ইতিমধ্যেই ৬০০ জন ভারতীয়কে বিমানযোগে চিন থেকে দেশে ফিরিয়েছে ভারত।

এই মহামারি করোনা ভাইরাসে আতঙ্ক হয়ে হংকংয়ে সোমবার কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন চিকিত্‍সাকর্মীদের একাংশ। তাঁরা দাবি জানিয়েছেন, চিনের সঙ্গে এই শহরের সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়ার জন্য। আর তাঁদের এই দাবি মানা না হলে আরও বহু চিকিত্‍সাকর্মী এই ধর্মঘটে যোগ দেবেন বলে হুমকি দিয়ে রেখেছেন। হংকংয়ে এখনও পর্যন্ত পনেরো জন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন।

ইতিমধ্যেই চিনের সঙ্গে তাদের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে মঙ্গোলিয়া, রাশিয়া ও নেপাল। বিদেশি নাগরিকদের প্রবেশ ইতিমধ্যেই বন্ধ করে দিয়েছে বেশ কয়েকটি দেশ। এখনও পর্যন্ত ভারত-সহ মোট ২৪টি দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: