Entertainment

‘খানদানি সাফাখানা’র গোপন রাজ্ : সেক্স শব্দে লজ্জা আছে, গোপনে বাড়ে রোগ

এক সময় বামফ্রন্ট আমলে যৌন শিক্ষা দেবার চেষ্টা করেছিলো পশ্চিমবঙ্গ সরকার , ছাত্র ছাত্রীদের বয়স সন্ধি কালের সমস্যা নিয়ে যে প্রচেষ্টা তার সাথে অনেকটাই মিল আছে 'খানদানি সাফাখানা'. ভারত সরকারের পরিবার পরিকল্পনার পপুলেশন কন্ট্রোল প্রোগ্রামে কন্ডোম বিলি করা কে অনেকেই বাঁকা চোখে দেখেছে , এবার হিন্দি সিনেমাতে দেখবে আমজনতা যে 'সেক্স শব্দে লজ্জা আছে গোপনে বাড়ে রোগ' নিয়ে 'খানদানি সাফাখানা'

যৌন সমস্যায় ভুগছেন ? আপনার জন্য আসছে সোনাক্ষীর সেক্স ক্লিনিক ‘খানদানি সাফাখানা’য়
সেক্স নিয়ে লুকিয়ে রাখেন গোপন কথা ?
বলতে না পেরে মনের ভিতর ভারী সংশয় ?
লুকিয়ে রাখেন গোপন ব্যাথা ? যেতেই হবে
পরিবারে একঘরে ?
হতাশা জন্মেছে ?

আর এই নিয়ে গল্পের পিছনের টা ভারী হলেও ভিত্তিতে অনেটাই মজা পাওয়া যাবে, আর নিয়ে সেক্স ক্লিনিককে ঘিরে আবর্তিত হয়েছে সোনাক্ষীর চিত্রনাট্য। ‘যৌনতা’ শব্দটা চিরকাল ‘নিষিদ্ধ’ ভারতের কথা ছেড়ে আমরা যদি বাংলার কথা বলি তাহলে দেখুন এই এখানে অনেক সময় পাবলিক টয়লেটে , চলতি ট্রেন , গ্রামের দিকের বাসে , আধা শহরের ট্রেকারে ছোট বিজ্ঞাপন ” সেক্স সমস্যা চলে আশুন গেরেন্টি সহ চিকিৎসা হয় , সমাধান না হলে টাকা ফেরত ” অনেকেই দেখেন কিন্তু আর চোখে। PK সিনেমা তে একটি অকাল সত্য কথা বলেছিলো পিকে যে ” ঢাক ঢোল বাজিয়ে বিয়ে মানে তো সবাই কে জানানো যে ওরা সেক্স করবে।সমাজে এমন একটা হাবভাব যে ‘সেক্স’ উচ্চারণও ঘোরতর পাপ। যৌনতার বিষয়ে খোলাখুলি আলোচনা তো দূরের কথা, ছোট ছেলে মেয়েদের কে এড়িয়ে বাবা মায়েরা টিভির চ্যানেল ঘুরিয়ে দেন। যাতে ওই সিন্ একসাথে বসে না দেখতে হয়। সমাজের সেকেলে চিন্তাধারায় আঘাত হানতে চলেছে সোনাক্ষী সিনহার নতুন ছবি ‘খানদানি সাফাখানা’

মোদ্দাকথা হল সেক্স নিয়ে সামাজিক ছুৎমার্গ। ইতিমধ্যেই মুক্তি পেয়েছে ছবির ট্রেলার। এই ছবিতে দমফাটা হাসির মধ্যে দিয়ে গুরুগম্ভীর ‘ব্যধি’কে তুলে ধরেছেন পরিচালক শিল্পী দাশগুপ্তা।

শহরে একটি সেক্স ক্লিনিককে ঘিরে আবর্তিত হয়েছে চিত্রনাট্য।আর এখানেই শেষ নয় কি ভাবে ষ্ট্য এই ঘটনা , সোনাক্ষীর মামা গ্রামের ওই ক্লিনিক চালাতেন। মামার মৃত্যুর পর ক্লিনিকের দায়িত্ব সোনাক্ষীর উপরে আসে । মামা একটি দেন পত্র করে যান যে নিদান পক্ষে ৬ মাস এই ক্লিনিক চালাতে হবে। এর পরই মালিকানা পাবেন সোনাক্ষী। শুরু হল ভাগ্নী। প্রশ্ন এখানে এক মহিলা চালাবেন সেক্স ক্লিনিক! আর সেখানেই পুরুষরা খোলাখুলি তাঁদের সমস্যা বলতে পারবেন তো? কি ভাবে বলবেন এই গোপন সমস্যার কথা । মানে সেক্স নিয়ে সেই গোপন গোপন ব্যাপার।

সোনাক্ষি চায় মানুষ তার কাছে আসুক কিন্তু সোনাক্ষি মহিলা বলে পুরুষ মানুষ আস্তে লজ্জা করেন কিন্তু না এসেও উপায় নেই , শুরু তা এভাবেই বাস্তব কে তুলে ধরেছে। সমাজে রোতে যায় যে এক মহিলার কাছে গিয়ে সেক্স এর কথা বলতে হবে এই নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয় , এর পাশাপাশি সোনাক্ষির ভালোবাসার মানুষ কে খুঁজে পান। এই ছবি তে রয়েছে মজাদার গানের দৃশ্য। এরকমই পুরুষদের সেক্সুয়াল সমস্যা নিয়ে ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে ‘শুভ মঙ্গল সাবধান। আয়ুষ্মান খুরানা ও ভূমি পেডনেকরের অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছিল।

এই বিষয় নিয়ে কলকাতায় চিকিৎসা করেন বিশিষ্ট চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক জানালেন যে , এটা সত্যি কথা মানুষ এখন আগের থেকে আধুনিক মনের ভাবনা পোষণ করলেও লজ্জার খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আস্তে পারেন নি , তাই অনেক সময় ব্যাধি গোপন করে জীবন বিপন্ন হয়।
ওপিনিয়ন টাইমসের নির্দিষ্ট কিছু প্রশ্ন
১) সেক্স সমস্যা নিয়ে যখন কোন পুরুষ আসেন তখন কি তার স্ত্রী আসেন ? ১০০ জনের কত জন
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : ৩৫%
২) মহিলাদের সেক্স সমস্যা নিয়ে যখন আসেন তখন তার কি স্বামী সঙ্গে তাকেঁ ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : ৯০%
৩) সেক্স সমস্যায় আক্রান্তরা রোগ গোপন করার প্রবনতা কেমন ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক :৭০%
৪) ইন্টানেট যে ভাবে সব মানুষের হাতের নাগালে তার ফলে কি সেক্স এডুকেশন বেড়েছে ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : হ্যা অনেক অংশে বেড়েছে। বলা যায় আগে লুকিয়ে আসর প্রবণতা ছিল এখন অন্য পাচটা রোগের মতোই আসেন
৫) বাজারে অনেক সেক্স এর ওষুধ বিক্রি হয় সেগুলো কি ঠিক ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : চিকিৎসকের পরার্মশ ছাড়া ব্যবহার করা ভালো নয় , মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।
৬) ভারতে বাংলা কি পিছিয়ে সচেতনতার ক্ষেত্রে ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : এখানকার কালচারাল ব্যাপার টা তো আলাদা তাই কিছুটা পিছিয়ে , তবে অনেক বেড়েছে এখন।
৭) সেক্স টা কি আর পাঁচটা রোগের মত ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : হ্যা , কারণ এখানে শরীর ও মন দুটো বিষয় কে নিয়েই কাজ করতে হয়
৮) সেক্স চিকিৎসায় কি মানসিক চিকিৎসার একটি অঙ্গ ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : বলতে পারেন কিন্তু সেটাই সব নয় , কারণ শারীরিক প্রতি বন্ধকতা বলে একটি বিষয় আছে তখন অপারেশন থেকে সবই করতে হয়
৯) এই ধরণের বিষয়ে চিকিৎসা করেন আপনি, সমাজ কি ভাবে দেখে ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক :সমাজ যে ভাবে শিক্ষিত হবে সেই ভাবে মানুষের ভাবনাও তৈরী হবে। রোগ গোপন করলে অসুস্থ থাকবে , চিকিৎসা করলে সারবে। আর যৌন্য সমস্যা আর পাঁচটা রোগের মত ।
১০) কি ভাবে সচেতনতা আপনারা বাড়ান সাধারণ মানুষের কাছে ?
চিকিৎসক গোবিন্দ চান্দ্রা বসাক : আমাদের ক্লিনিকের মধ্যেই এই ধরণের অসুখ নিয়ে প্রথমে পরিবারের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করি বয়স অনুযায়ী। তার পর ক্যাম্প করে সমাজে আলোচনা করি। পোস্টার , ছোট ভিডিও জার্নালে লেখা ইত্যাদি।
আর এই নিয়ে আসছে নতুন হিন্দি সিনেমা , ছবির প্রযোজনা করেছেন ভূষণ কুমার, মহাবীর জৈন, মৃঘদীপ সিং লাম্বা, দিব্যা খোসলা কুমার এবং কৃষণ কুমার। সোনাক্ষী ছাড়াও এই ছবিতে রয়েছেন বরুণ শর্মা ও বাদশা। সোনাক্ষীর ভাইয়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন বরুণ শর্মা

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: