Nation

চালু হল পার্সেল ট্রেন, কেবল অত্যাবশকীয় পণ্যের জন্য।

যাত্রীবাহী ট্রেন এখন বন্ধ, পার্সেল ট্রেনের মাধ্যমেই লাভের মুখ দেখতে চাইছে রেল।

@ দেবশ্রী : সারা দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। এর মধ্যে অত্যাবশকীয় পণ্য পরিবহণের জন্য পূর্ব রেল ৭টি ভিন্ন রুটে পার্সেল ট্রেন চালানো শুরু করেছে। মুলত হাওড়া ও শিয়ালদহের সঙ্গে দিল্লি, মুম্বাই, গুয়াহাটি, মালদা ও জামালপুরের মধ্যে চলবে এই ট্রেনগুলি। ই-কমার্স এর পাশাপাশি অত্যাবশকীয় পণ্য যাতে এই রুটগুলিতে সহজে পৌছে যেতে পারে তাই সময় মেনেই চালু হচ্ছে এই পার্সেল ট্রেন পরিষেবা।

শিয়ালদহ থেকে গুয়াহাটির মধ্যে ট্রেন চলবে চলতি মাসের ১২ দিন। হাওড়া থেকে গুয়াহাটির মধ্যে এই ট্রেন চলবে চলতি মাসের ১০ দিন। শিয়ালদহ থেকে মালদা টাউনের মধ্যে এই ট্রেন চলবে ১৬ দিন। হাওড়া থেকে জামালপুরের মধ্যে এই ট্রেন চলবে ১৬ দিন। হাওড়া থেকে নিউ দিল্লির মধ্যে এই ট্রেন চলবে ১২ দিন। শিয়ালদহ থেকে নিউ দিল্লির মধ্যে এই ট্রেন চলবে ১০ দিন। হাওড়া থেকে মুম্বাইয়ের মধ্যে এই ট্রেন চলবে ১১ দিন। যাত্রাপথে এই ট্রেনগুলি থামবে বর্ধমান, মালদা টাউন, নিউ জলপাইগুড়ি, নিউ কোচবিহার, নিউ আলিপুরদুয়ার ও বংগাইগাঁও, শ্রীরামপুর, শেওড়াফুলি, ব্যান্ডেল, বোলপুর শান্তিনিকেতন, রামপুরহাট, আসানসোল, নৈহাটি, মুরারই, নিউ ফারাক্কা সহ আমাদের রাজ্যের একাধিক স্টেশনে।

যে সমস্ত সংস্থা বা ব্যবসায়ী এই পার্সেল ট্রেন মাধ্যমে তাদের পণ্য পাঠাতে চান তারা হাওড়া, শিয়ালদহ, আসানসোল, মালদা পার্সেল বুকিং অফিসে যোগাযোগ করতে পারবেন। পূর্ব রেলের বক্তব্য, সময় সারণী মেনে এই ট্রেন চালানোর ফলে যথাসময়ে পণ্য পৌছে যাবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। মূলত এই সব ট্রেনে করে মাস্ক, দুগ্ধজাত সামগ্রী, ওষুধ, স্যানিটাইজার, ফল, শাক সবজি পাঠানো হচ্ছে। বিশেষ করে এর ব্যবহার করছে
ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজনের মতো একাধিক সংস্থা।

গোটা দেশে মোট ১০৯ টি পার্সেল ট্রেন চালানো হচ্ছে। যার মধ্যে ৪০ টি একেবারে নতুন রুটে। যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকলেও পার্সেল ট্রেন চালিয়ে কিছুটা লাভ করতে চাইছে রেল। রেল মন্ত্রক ইতিমধ্যেই বিভিন্ন ডিভিশন থেকে এই পরিষেবা সম্পর্কে খোঁজ নিতে শুরু করেছে। জানা যাচ্ছে প্রয়োজন হলে আরও বেশ কিছু রুটে চালানো হবে পার্সেল ট্রেন।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: