Nation

চীনের উপর শুল্ক বাড়িয়েই তার সাথে কাজ করবে আমেরিকা, জানাচ্ছে প্রেসিডেন্ট

করোনার উৎপত্তিস্থল নাকি চীনের ইউহান শহর আর তাঁর প্রমান থাকার দাবি করছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

@ দেবশ্রী : আজ সারা বিশ্বের মানুষের জীবন রয়েছে সঙ্কটে। আর তার জন্য চীনকেই দায়ী মনে করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর এই মুহূর্তে চীনের উপর রীতিমত রেগে আছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাই মনে করা হচ্ছে চীনের উপর হয়ত নতুন করে শুল্ক চাপাতে পারে আমেরিকা। করোনা ভাইরাসের সঙ্কটে বেজিংকে টার্গেট করেছেন কারণ তিনি সংক্রমণের জন্য ইউহান ল্যাব সম্পর্কিত প্রমাণ পেয়েছেন বলেই দাবী।

তথ্য পাওয়া গিয়েছে, শেষ ছ’য় সপ্তাহে ৩০ মিলিয়ন মানুষের কাজ গিয়েছে, লকডাউনে বিরাট ধাক্কা লেগেছে আমেরিকার অর্থনীতিতে। ইউরোপে অপ্রত্যাশিত অর্থনৈতিক ধাক্কা আসতে পারে বলেই বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন।

নভেল করোনা ভাইরাস এখনও অবধি ২ লাখ ৩০ হাজারের বেশি মানুষ মেরে ফেলেছে। ঘরবন্দি গোটা বিশ্বের মানুষ, তাই ব্যাপক বেগ পাচ্ছে অর্থনীতি।

মনে করা হয়, ইউহানের একটি বাজার থেকে যেখানে বন্যপ্রানীর মাংস বিক্রি হয় সেখান থেকেই শুরু হয়েছে এই ভাইরাস, তবে জল্পনা শোনা গিয়েছে গ্রাউন্ড জিরো সিটির সিক্রেট ল্যাব থেকে শুরু হয়েছে করোনা ভাইরাস। ইউহান ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি যে করোনা ভাইরাসের উত্‍স সে বিষয়ে বিশেষ তথ্য পেয়েছেন কিনা জানতে চাইলে ট্রাম্প জানিয়েছেন, ‘আমার কাছে প্রমাণ আছে’। এই উত্তরে কৌতূহল আরও বাড়লে ট্রাম্পের কাছে তা জানতে চাওয়া হয়, তবে তিনি স্পষ্ট জানান, ‘আমি আপনাকে তা জানাতে পারব না’।

চিনের ধারের বিষয়ে কথা উঠলে ট্রাম্প বলেন, ‘আমিও চিনের সঙ্গে একি কাজ করতে পারি, শুধু শুল্ক বাড়িয়ে দেওয়া হবে। বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে ওয়াশিংটন এবং বেজিং জানুয়ারিতে অনেকটা বেড়ে গিয়েছে, শুল্ক অনেকটাই বেশি চাপানো হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে।

তাহলে এখন প্রশ্ন উঠছে কতটা বাড়ানো হল শুল্কের পরিমান ? ট্রাম্প যে প্রমানের দাবি করছেন তা কী আদতে সত্য নাকি এর পিছনেও লুকিয়ে রয়েছে কোনো রাজনীতি ? কী বা সেই প্রমান আর কেনই বা তা প্রকাশ্যে আনছেন না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ?

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: