Big Story

চূড়ান্ত অবহেলায় মেট্রো যাত্রীমৃত্যু : কেন মেট্রো কর্তৃপক্ষের সাজা হবে না ?

যাত্রীমৃত্যুতে মেট্রোর বিরুদ্ধে উঠল গাফিলতির অভিযোগ সেন্সর থেকে মোটরম্যান সবাই এর জন্য দায়ী , দাবি জানালেন সহযাত্রীরা। আদেও মিলবে বিচার না পরিবারের একটা চাকরি ও এককালীন কিছু টাকা দিয়ে দায় সারবে মেট্রো করতি পক্ষ !

যাত্রী মৃত্যুর ঘটনায় উঠছে গাফিলতির অভিযোগ মেট্রোর দরজায় হাত আটকে । শিক্ষা নিল না মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ একাধিক দুর্ঘটনার পরও । যাত্রীদের অভিযোগ করেন একজন ব্যক্তিকে নিয়েই ছুটল ট্রেন।রক্ষীরা খেয়ালই করলেন না অথচ স্টেশনে থাকা সত্তেও। নিরাপত্তার দায়টা যারা ছিলেন তারা ফোন ব্যস্ত ছিলেন বলে অভিযোগ সহযাত্রীদের।
কি হয়েছিল ?

ট্রেন ধরতে গিয়ে দরজায় আটকে গেল যাত্রীর হাত এবং বাইরে গোটা দেহ, পার্কস্ট্রিট স্টেশনে ব্যস্ত সময়ে । ট্রেন সেই অবস্থাতেই ছুটতে শুরু করল। নিরাপত্তারক্ষীরা স্টেশনে থাকা সত্ত্বেও খেয়ালই করলেন না। প্রশ্ন উঠেছে কী করছিলেন তাঁরা ? তাঁদের নজরদারি চালানোর কথা ট্রেন আসা-যাওয়ার পথে। যাত্রীদের অভিযোগ, স্টেশনে তো বেশিরভাগ সময়েই মোবাইল ফোন ঘাঁটতে ব্যস্ত থাকেন নিরাপত্তারক্ষীরা।

মোটরম্যান কি করছিলো ? মোটরম্যান সাধারণত ট্রেনের দরজা বন্ধের পর উঁকি দিয়ে দেখেন । তার পরই সবুজ সঙ্কেত দেন। মোটরম্যান কিন্তু ব্যস্ত সময়ে একবারও দেখলেন না । প্রশ্নই উঠেছে কী করছিলেন তিনি? সিসিটিভি তে তো দেখা গেছে তও স্টেশন করতি পক্ষ কি করছিলো। যাত্রীর হাত আটকে দরজায়। তখন সিগন্যাল দিয়ে দিল? মোটরম্যানের ভূমিকা প্রশ্নের মুখে ।

ট্রেন ছেড়েদেবার পর যখন জানতে পারলেন তখন কি করলেন ? সব রকমভাবে চেষ্টা করেছেন ট্রেন থামানোর ভিতরে থাকা যাত্রীরা । চালকের কাছে খবর পৌঁছতে পারেননি কেন ? বিপদের সময় আপত্কালীন বোতাম টিপেও সাড়া মেলেনি। মেট্রোর হেল্পলাইনে ফোন করেছিলেন যাত্রীরা, কেন সেটা তোলেন নি কেও ?কিছুদিন আগে আগুন লাগার ঘটনাতেও কাজ করেনি হেল্পলাইন। এতগুলো ঘটনা ঘটে যাবার পর শিক্ষা নিল না মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ।

প্রতিদিন ট্রেন চালানোর আগে কেন কোচের অকেজো সেন্সর থেকে সব কিছু পরীক্ষা হয় না কেন ? যদি হয় তাহলে কেই ফিট সার্টিফিকেট দিয়েছেন। তাকে কেন সাজা দেওয়া হবে না। কাজ করেনি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক কোচের সেন্সর। মেট্রো কর্তৃপক্ষ দাবি করেছিল, একটা কাগজও সনাক্ত করতে পারে সেন্সর। কিন্তু এক যাত্রীর হাত সেন্সর করতে পারল না স্বয়ংক্রিয় দরজা।

মেট্রোর মুখপাত্র ইন্দ্রাণী বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, তদন্তের পর এবিষয়ে বলা সম্ভব। মোটরম্যানের ভূমিকা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। কিন্তু প্রতিবারই কি দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা বলে দায় এড়িয়ে যেতে পারে মেট্রো? কেন শুধু মোটর ম্যান , কেন সাজা পাবে না মেট্রো রেলের ইঞ্জিনিয়ার থেকে যারা রেল পরিচর্যা করেন প্রতিদিন , কেন সাহা পাবেন না নিরাপত্তা রক্ষীরা। সব মিলিয়ে বলা যায় মেট্রো রেলের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ করতি পক্ষ।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: