Weather

জোড়া ভূমিকম্প, কেঁপে উঠল দিল্লি-সহ উত্তর ভারতের কিছু অংশ

মে মাসে এই নিয়ে পাঁচবার দিল্লি ও সংলগ্ন এলাকায় মৃদু ভূমিকম্প অনুভূত হল।

প্রেরনা দত্তঃ রিখটারস্কেল—এ কম্পনের মাত্রা ৪.৬। কিন্তু দিল্লিনিবাসী অনেকেউই বলছেন, কেঁপে উঠেছি। শুক্রবার রাতে কেঁপে উঠল রাজধানী। নয়ডা, গুরুগ্রামেও কম্পন অনুভূত হয়েছে। দিল্লি ছাড়া হরিয়ানা, পাঞ্জাবের বাসিন্দারও দুলে উঠেছিলেন বলে দাবি করেছেন।


ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল সেন্টার ফর সিসমোলজির দাবি, হরিয়ানার রোহতক এই ভূমিকম্পের উপকেন্দ্র। জানা গিয়েছে, বেশ কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী হয়েছিল এই কম্পন। আতঙ্কে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসতে দেখে গিয়েছে দিল্লি-সহ উত্তর ভারতের একাধিক জায়গার আবাসিকদের। শুক্রবার রাত ৯টা ৮মিনিটে অনুভূত হয় এই কম্পন। এই গভীরতা ছিল মাটি থেকে ৩.৩ কিমি পর্যন্ত।

দুদিন আগে একবার কম্পন অনুভূত হয়েছে রাজধানী দিল্লিতে। কম্পন অনুভূত হয়েছে ফরিদাবাদেও। কয়েকদিন আগেই মণিপুর এবং উত্তর পূর্বের অসম, মেঘালয়, মিজোরামেও ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছিল। এর আগে হিমাচল প্রদেশের চাম্পায়। সপ্তাহে কয়েকবার কম্পন অনুভূত হয়। আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন এলাকার বাসিন্দারা। যদিও বড় কোনও দুর্ঘটনা ঘটেনি। হতাহতেরও খবর পাওয়া যায়নি।

মে মাসে এই নিয়ে পাঁচবার দিল্লি ও সংলগ্ন এলাকায় মৃদু ভূমিকম্প অনুভূত হল। যার জেরে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে আরও বেশি। একে তো লকডাউন। বেশিরভাগ লোকজন ঘরে বন্দি। তার মধ্যে ভূমিকম্প যেন আরও বেশি ভয়ের সঞ্চার করছে।

দিল্লির অনেকে আবার বলছেন, এক ঘণ্টার মধ্যে দুবার কম্পন অনুভূত হয়েছে। জানা গিয়েছে মাটি থেকে পাঁচ কিমি নিচে উত্সস্থল ছিল। দ্বিতীয়বার ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ২.৯। ১২ এপ্রিলের আগে পর্যন্ত দিল্লিতে কম তীব্রতার ভূমিকম্প হয়েছিল তিনবার। ১৫ মে হওয়া ভূমিকম্পের তীব্রতাও ছিল কম।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: