West Bengal

“দিদি বলেছে তোরা কাট মানি লিয়েছিস : ওটা দে”: লক্ষি , সর্মিলা , টুসু

কাটমানি ফেরত চাইলেন গ্রামবাসীরা, খবর ছড়াতেই আরো নেতার নাম উঠে আসছে অনুব্রতর গড়ে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছিলেন মঙ্গলবার নজরুল মঞ্চে কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে, ‘ সব কাটমানি ফেরত দাও’। চব্বিশ ঘণ্টা কাটলোনা , দিদি বলেছে ব্যাস ঘেরাও শুরু । তাই নিয়ে কাটমানি ফেরতের দাবিতে শুরু হয়ে গেল তৃণমূল নেতার বাড়ি ঘেরাও করে।

ইলামবাজার থানার শ্রীচন্দ্রপুর পঞ্চায়েতের সদস্য উত্তম বাউড়ি এবং বুথ সভাপতি রাজীব আকুরের বাড়ি ঘেরাও করল গ্রামবাসীরা। দিদি যা বলেছেন তাই। যা নিয়েছ, ফেরত দাও।
অনেক দিনের অভিযোগ শ্রীচন্দ্রপুর পঞ্চায়েতে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা এবং ১০০ দিনের কাজের টাকা লুঠ করেছেন ওই দুই শাসক নেতা।টুসু মান্ডি বলেন , “আমাদের ঘর হয়নি। আর ওরা কারও থেকে সাত হাজার, কারও থেকে আট হাজার টাকা নিয়ে নিজেরা পেল্লাই বাড়ি করেছে।” গ্রামবাসীরাও নিজেদের তৃণমূল সমর্থক বলে দাবি করেছেন। খবর যায় সতাহনীয় থানায় কিছুক্ষনের মধ্যেই পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়, পঞ্চায়েত সদস্যর বাড়ির দরজায় তৃণমূলের পতাকা লাগিয়ে দীর্ঘক্ষণ ঘেরাও করে রাখেন তাঁরা। প্রশাসন আশ্বাস দেন লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করা হবে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: