Nation

দিলীপ ঘোষের বিস্ফোরক মন্তব্য : “বাংলাদেশের সঙ্গে হাত মিলিয়ে প্রধানমন্ত্রী হতে চান মমতা”

দিলীপ ঘোষ বিজেপি সাংসদকে বাংলায় হিংসা নিয়ে তীব্র সমালোচনা করতে দেখা যায় । দিলীপ বাবু বলেন ৫৪২টি আসনের মধ্যে শুধুমাত্র ৪২টি আসনে কমবেশি খুন ও সন্ত্রাস হচ্ছে। এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে হবে।

এদিন সংসদে কাটমানি নিয়ে সরব হলেন বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ। মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ বলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে “এ রাজ্যে নতুন জিনিস উদ্ভব হয়েছে। তা হল কাটমানি। আমরা এর আগে কখনও শুনিনি।” কাটমানি কি তার ব্যাখ্যা দল দিলীপ বাবু । দিলীপ ঘোষের বলেন কি দূর ভাগ্য যে কাটমানির জন্য নেতা-মন্ত্রীর ঘরের সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে জনতা। খোদ মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায় কাটমানি বন্ধের জন্য আইন আনবেন বলেছেন। দিলীপের কথায়, নিরঙ্কুশ ক্ষমতা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার চালাচ্ছেন কিন্ যে পরিমান লুট হচ্ছে তা অকল্পনীয় ।তার ফলে এই দেখে নেতা, মন্ত্রী, কাউন্সিলর চলে আসছে বিজেপিতে।

দিলীপ বাবুর অভিযোগ , “রাজ্যে সরকার আছে, আইন নেই। থানা আছে পুলিস নেই। স্কুল-কলেজ থাকলেও ধরনায় বসছেন শিক্ষাকর্মীরা। এমনই সোনার বাংলা মুখ্যমন্ত্রী আমাদের উপহার দিয়েছেন”। দিলীপ ঘোষ অভিযোগ তোলেন, ভাষা নিয়ে ভেদ ভেদ তৈরি করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিহারীদের তিনি দয়া করেছেন এই বাংলায় থাকতে দিয়ে , অন্য আরজের মানুষ কি এই রাজ্যে থাকতে পারবে না । তাদের সবাই কে বাংলা শিখে এ রাজ্যে প্রবেশ করতে হবে বলে মমতা নিদান দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন দিলীপ। দিলীপ বাবু বলেন , “হেমা মালিনী যদি গঙ্গা স্নানে যান, তাহলে ওনাকেও বাংলা শিখতে হবে”।

দিলীপ ঘোষ বিস্ফোরক মন্তব্য করেন,যে “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে চান। আমরাও চাই। সংসদে বাংলায় কথা বলা যেতে পারে। কিন্তু ৪২টি আসন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী হওয়া যায় না”। দিলীপ বাবুর কটাক্ষ, , “বাংলাদেশের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ক্ষমতায় আসবেন। এই জন্য নির্বাচনী প্রচারে বাংলাদেশ থেকে অভিনেতাও নিয়ে আসতে হয়েছে তাঁকে”।এর পরই লোক সভা ঘিরে হট্টগোল শুরু হয়।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: