Nation

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছুঁলো ৯৬ হাজারের গন্ডি, মারা গেছেন ৩ হাজারের অধিক মানুষ

গত ২৪ ঘন্টায় ৫ হাজার ২৪২ জনের করোনা সংক্রমণ, যা ভেঙে দিল আগের সব রেকর্ডকে

@ দেবশ্রী : লকডাউনকেও হার মানাচ্ছে করোনা। কোনোভাবেই তার উপরে রাশ টানা যাচ্ছে না। বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। সোমবার দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৯৬ হাজার ১৬৯। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ২৪২ জন। এক কথায় যা আগের সমস্ত রেকর্ডকে ভেঙে দিয়েছে। একই সঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্যানুযায়ী ৫৬ হাজার ৩১৬ জন এখন হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন। ৩৬ হাজার ৮২৪ জন ইতিমধ্যেই করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়েছেন। মৃত্যুমিছিলে শামিল ৩ হাজার ২৯ জন। এই মুহূর্তে দেশের মধ্যে সবথেকে খারাপ অবস্থায় রয়েছে মহারাষ্ট্র। সেখানে মোট করোনা আক্রান্ত ৩৩ হাজার ৫৩ জন। ১১৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুজরাটে মোট আক্রান্ত ১১ হাজার ৩৭৯ জন। সেখানে মৃতের সংখ্যা ৬৫৯।

রাজধানী দিল্লিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১০ হাজার। সেখানে মোট কোভিড রোগী ১০ হাজার ৫৪ জন। ইতিমধ্যেই ১৬০ জনে মৃত্যু হয়েছে। মহামারীতে প্রাণহানির তালিকায় তামিলনাড়ুও বেশ উপরের দিকেই রয়েছে। সেখানে মোট করোনা আক্রান্ত ১১ হাজার ২২৪ জন। রবিবার আক্রান্তের সংখ্যায় প্রায় ২০ হাজার ছুঁয়ে ফেলল মুম্বই। গত ২৪ ঘণ্টায় ওই শহরে ৩৪ জনের প্রাণ গিয়েছে। সবমিলিয়ে করোনায় রবিবার পর্যন্ত মুম্বইয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭৩৪ জনের। এশিয়ার বৃহত্তম বস্তি ধারাভিতে মোট আক্রান্ত ১২৪২ জন। বিএমসি-র রিপোর্ট বলছে, এদের মধ্যে আবার ৫৬ জনের মৃত্যুও হয়েছে।

দেশে চতুর্থ দফার লকডাউন শুরু হয়েছে আজ থেকে। চলবে আগামী ৩১ মে পর্যন্ত। এই লকডাউনে সমস্ত ধর্মীয় স্থান, হোটেল, জিম, মেট্রোরেল বন্ধ থাকবে। কোনওরকম আন্তার্জাতিক বিমান বা আন্তঃরাজ্য বিমান এই লকডাউনের সময় লচবে না। শুধুমাত্র ত্রাণ ও চিকিত্‍সা সরঞ্জাম নিয়ে বিভিন্ন রাজ্যের মধ্যে বিমান চলাচলের অনুমতি রয়েছে। এখন দেখার বিষয় চতুর্থ লকডাউনের পর, এই করোনার উপর নিয়ন্ত্রণ আনা যায় কী না। কারন তা না হলে আরও বড় বিপদ।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: