Industry & Tread

দেশ যখন ধুঁকছে আর্থিক অবনতিতে, তখন কাঁধ থেকে ঋণ এর চাপ নামাতে মরিয়া মুকেশ আম্বানি

একের পর এক অর্থ লগ্নি জিও-তে, তা দিয়েই কী হতে পারে সমস্যা সমাধান ?

@ দেবশ্রী : সারা দেশ এই মুহূর্তে যাচ্ছে একটি কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে। সকলে হয়ে রয়েছেন গৃহবন্দী। তখন মুকেশ অম্বানী ছুটছেন টাকা-পয়সার বন্দোবস্ত করতে। কিছু দিন আগে চুক্তি করেছেন ৪৩,৫৭৪ কোটি টাকায় ফেসবুককে জিয়ো প্ল্যাটফর্মের ৯.৯৯% অংশীদারি বিক্রির জন্য। সপ্তাহ দেড়েক গড়াতে না-গড়াতেই সোমবার তাঁর সংস্থা রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রিজ় (আরআইএল) জানাল, এ বার লগ্নি আসছে মার্কিন প্রাইভেট ইকুইটি সংস্থা সিলভার লেকের তরফ থেকে।

এই মুহূর্তে ১.৬১ লক্ষ কোটি টাকা ধারের বোঝা রিলায়্যান্সের ঘাড়ে। সংশ্লিষ্ট মহলের মতে, মুকেশ তা দ্রুত নামাতে চাইছেন ঠিকই। কিন্তু সেই পথে প্রশ্ন চিহ্ন ঝুলিয়েছে বিশ্ব জুড়ে তেলের চাহিদা ও দামে ধস। মূলত যে ধাক্কায় এপ্রিল-জুনে প্রায় ৩৭% লাভ কমেছে রিলায়্যান্সের। তেলের দর প্রায় ৭৩% পড়ায় সংস্থার শোধনাগারে মজুত তেলের মূল্যও তলানি ছুঁয়েছে।। হিসেবের খাতায় সেই লোকসান খাতে প্রায় ৪২৪৫ কোটি টাকা ধরেছে তারা। সংশ্লিষ্ট মহলের মতে, এই ক্ষতি তাদের অন্য ব্যবসা দিয়ে পুষিয়ে নেওয়া কিন্তু বেশ কঠিন, তা এতটা সহজ হবে না। বিশেষত করোনার আবহে। এমনকি কিছু প্রশ্ন যেখানে উঠেছে সৌদি অ্যারামকো-কে রিলায়্যান্সের তেল ব্যবসার অংশীদারি বিক্রির প্রক্রিয়া নিয়েও। ঋণ মেটানোর অর্থ জোগাড়ে তাই রাইটস ইসু করে তড়িঘড়ি বাজার থেকে টাকা তুলতে চাইছেন মুকেশ। পাশাপাশি শুনিয়ে রেখেছেন, আরও অর্থের সংস্থানে জিয়োর মোট ২০% অংশীদারি ছাড়তেও রাজি রয়েছেন তাঁরা।

জিয়ো প্ল্যাটফর্মের ১.১৫% অংশীদারি কিনতে ৫৬৫৬.৭৫ কোটি ঢালছে সিলভার লেক। লকডাউনে গোটা পৃথিবীর অর্থনীতি যখন বিপর্যস্ত, তখন এই জোট উল্লেখযোগ্য বলে দাবি রিলায়্যান্সের। মুকেশ আম্বানি বলেছেন, ”ভারতীয়দের সুবিধার জন্য ডিজিটাল ব্যবস্থার ধারাবাহিক উন্নতিতে সিলভার লেকের দক্ষতা কাজে লাগাতে চাই।”

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: