Weather

ধেয়ে আসছে আমফান, বিপদ পশ্চিমবঙ্গের উপর !

সকল রকম সতর্কতা করা হয়েছে জারি, চলছে বিপর্যয় মোকাবিলার প্রস্তুতি

@ দেবশ্রী : করোনার মতো কঠিন পরিস্থিতির মাঝেই ধেয়ে আসছে এক প্রাকৃতিক দুর্যোগ। দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি ইতিমধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে রুপ নিয়েছে। ঘূর্ণি ঝড় আমফান এর জন্য পশ্চিমবঙ্গের উপর রয়েছে বিপদের আশঙ্কা। করোনা ভাইরাসের হামলায় এমনিতেই ‘জর্জরিত’ রাজ্য। উপরি উদ্বেগ বাড়িয়ে রাজ্যে আছড়ে পড়ার হুমকি দিচ্ছে সাগরের ‘অতিথি’।

মৌসম ভবন জানিয়েছে, গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে ঘূর্ণিঝড়ে ‘আমফান’। তার সম্ভাব্য অভিমুখ পশ্চিমবঙ্গ ও সংলগ্ন ওড়িশার দিকে। জানা যাচ্ছে আগামী ২০ মে ভোরবেলা ঝড়টি স্থলভূমিতে প্রবেশ করতে পারে। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা গণেশকুমার দাস এ দিন জানান, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আগামী মঙ্গলবার থেকেই উপকূলীয় জেলাগুলিতে বৃষ্টি হতে পারে। বুধবার গাঙ্গেয় বঙ্গের প্রায় সব জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা। আমফান এখনও পারাদ্বীপ বন্দর থেকে ১০৬০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। সমুদ্রে যার গতি ২০ কিলোমিটার রয়েছে। স্থলভাগে ঝাঁপিয়ে পড়ার সময় তার গতি বৃদ্ধি হয়ে ১৫০ থেকে ১৬০ কিলোমিটার গতি হবে।

বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া এই অতি বিধ্বংসী সাইক্লোনিক স্টর্মের গতি পশ্চিমবঙ্গের ওপর দিয়ে যাবে। মেদিনীপুর থেকে ঢুকে কাঁথি, মন্দারমনির ওপর এটি প্রচণ্ড শক্তিশালী হবে। ১৭ মে থেকে উত্তরপূর্ব মুখে এগোচ্ছে এই বিধ্বংসী সাইক্লোনিক স্টর্ম। ১৮ তারিখ থেকেই এই ঝড় উত্তর ও উত্তর পূর্ব অভিমুখে এগোবে। আর ১৮ থেকে ২০ -র মধ্যে ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে এই সাইক্লোনের ব্যাপক প্রভাব পড়া শুরু হবে।

এই ঘূর্ণিঝড়ের সতর্কতা পেয়েই সকল বিপর্যয় মোকাবিলার প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করেছে রাজ্য। ভিডিয়ো কনফারেন্সে পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশার প্রতিনিধিদের সঙ্গে এই দুর্যোগ মোকাবিলার প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করেছেন কেন্দ্রের ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবা। রাজ্যের পাশাপাশি উপকূলরক্ষী বাহিনীকেও প্রস্তুত থাকতে বলেছে কেন্দ্র। সকল মৎসজীবীদের জানানো হয়েছে ওই সময় যাতে কোনোমতেই সমুদ্রে না যান। এছাড়া সকল রাজ্যবাসীকেও করা হয়েছে সতর্ক।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: