Big Story

পছন্দের ক্লাবদেরকে টাকা দেওয়ার দুর্নীতি নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আরও একবার অভিযোগ হানলেন সুজন চক্রবর্তী

একদিকে মানুষ লকডাউনে সঙ্কটে রয়েছে, খেতে পারছে না, অপরদিকে রাজ্য সরকার ক্লাব গুলিকে দিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা

@ দেবশ্রী : বারবার রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আসছে অভিযোগ। আর এবারে করোনা মোকাবিলায় রাজ্য প্রশাসনের ভূমিকার আরও একবার কড়া সমালোচনা করলেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। লকডাউন চালাকালীন ক্লাবগুলিকে রাজ্যের উদ্যোগে টাকা বিলির অভিযোগ তোলেন সুজন চক্রবর্তী। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ট্যাগ করে টুইটে এর কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সুজন। তৃণমূলের মদতে সরকারের টাকা নিয়ে তোলাবাজি চলছে বলেও অভিযোগ করেছেন সুজন চক্রবর্তী। রাজ্যকে দুষে আবারও নজিরবিহীন আক্রমণ সুজন চক্রবর্তীর। লকডাউন পরিস্থিতিতে দিশেহারা একটা বড় অংশের মানুষ। কাজ নেই, রোজগার বন্ধে শোচনীয় অবস্থা।

এই রকম এক ভয়াবহ, সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে সরকারের টাকা রাজ্য তাঁর পছন্দের ক্লাবকে বিলোচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে তৃণমূল লক্ষ-লক্ষ টাকা নিয়ে দুর্নীতি করছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

টুইটারে একটি ভিডিও প্রকাশ করে রাজ্যের শাসকদলকে একহাত নিয়েছেন সুজন চক্রবর্তী। রাজ্যের শাসকদলকে দুষে সুজনের কটাক্ষ, ‘আবারও এক নিকৃষ্ট নজির। বেআব্রু করল শাসক দলকে। তৃণমূলী অসভ্যতা বহাল। লকডাউনের কঠিন সময়ে নাজেহাল মানুষ। খাদ্য নেই, পয়সা নেই। সংকটে রয়েছেন রাজ্যবাসী। অথচ তোলাবাজী, দলবাজি, খয়রাতি চলছেই, সেখানে কোনো বাঁধা নেই। পছন্দের ক্লাবে টাকা বিলোনো হচ্ছে, লাখ লাখ। লকডাউনের সময় এটাই নাকি পুলিশের গুরুদায়িত্ব। ছিঃ।’

এর আগেও লকডাউন চলাকালীন রাজ্যে রেশনে পণ্য-বণ্টনে অনিয়মের অভিযোগ তুলেছিলেন সুজন চক্রবর্তী। রাজনৈতিক দলের মদতে রেশন দোকান থেকে পণ্য নিয়ে গিয়ে পার্টির নামে বিলি চলছে বলে অভিযোগ তুলেছিলেন সুজন চক্রবর্তী। এমনকী এই বিষয়টি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও অভিযোগ জানান বাম প্রতিনিধিরা। কিন্তু তার উত্তর এখনও দেননি মুখ্যমন্ত্রী। চুপ আছে রাজ্য সরকার।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: