West Bengal

পঞ্চায়েতের হুমকিতে আত্মহত্যা : নীরবে চলে গেল রহিত বাউরি

একরাশ আসা নিয়ে বাড়ী তৈরী করছিলেন , রাজনৈতিক হস্তক্ষেপে অপমান সহ্য করতে পারলেন না , পাড়া প্রতিবেশীর বিক্ষোভ - পঞ্চায়েতর শাস্তি চাই

এক যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকার পঞ্চায়েত প্রধান ও স্থানীয় পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন মৃতের পরিবারের লোকেরা । এই ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে ক্ষোভ । এদিন তারা মৃতদেহ আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখান । ঘটনাটি ঘটেছে সালানপুর থানার সামডি বাথান পাড়া এলাকায় । এদিন সকালে নিজের বাড়িতেই গলায় দড়ি দেওয়া ঝুলন্ত অবস্থায় রহিত বাউরির মৃতদেহ দেখতে পান আশপাশের মানুষ । পরে ঘটনার খবর পুলিশে জানানো হলে স্থানীয়রা এই ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন । মৃতের পরিবারের লোকেদের অভিযোগ রোহিত প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার প্রথম কিস্তির টাকা পেয়েছিল । কিন্তু সময় মত বাড়ির যতটা অংশ নির্মাণ কাজ করার কথা তা করতে পারেনি । আর তাতেই স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান ও পঞ্চায়েত প্রশাসন তাকে বাড়িতে এসে বারবার হুমকি দিচ্ছিল বলে অভিযোগ । শুধু তাই নয় তার বাড়িতে বেশ কয়েকবার পাঠানো হয়েছিল পুলিশ ।

মৃতের বোন সারথি বাউরির অভিযোগ বেশ কয়েকদিন ধরেই তার ভাই রোহিত বাউরি কে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা নির্মাণ নিয়ে হুমকি দিচ্ছিল এলাকার প্রধান । এই বিষয় নিয়ে বাড়িতে পাঠানো হচ্ছিল পুলিশও । এই ভয়েই তার ভাই বাড়ির ভেতরেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছে বলে তারা মনে করছেন । এই ঘটনায় পুলিশের কাছে এলাকার পঞ্চায়েত প্রধান এর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে মৃতের পরিবার । যদিও সামডি পঞ্চায়েত প্রধান জনার্দন মন্ডল এই অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন । তিনি বলেন রোহিত প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার টাকা পেয়েছিল । কিন্তু প্রথম কিস্তির টাকায় যতটা বাড়ি নির্মাণ করা দরকার তা করতে পারেনি ।

প্রশাসন তার তদারকি করেছে । খোঁজখবর নিয়েছে সে কেন সরকারি টাকায় বাড়ি নির্মাণের কাজ করতে পারছে না । প্রধান এও জানান যে তিনি প্রয়োজনে ব্যক্তিগতভাবে বাড়ি নির্মাণে সহযোগিতা করতে পারেন। সরকারি টাকায় বাড়ি নির্মাণ যাতে হয় তারই তদারকি করেছিলেন তিনি । কিন্তু তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হচ্ছে । এটা একটা রাজনৈতিক চক্রান্ত বলে দাবি করেন সামডি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান জনার্দন মন্ডল ।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: