Culture

পরম্পরা আসুক থিমে , উভয় পক্ষের সন্ধি, শান্তি এলো পাড়াতে : জপুর ব্যায়াম সমিতি , কালিন্দী

জপুর ব্যায়াম সমিতির শারদোৎসব এবছর ৩০ তম বছরে পদার্পন করল, এবারের থিম 'রাজবাড়িতে সাবেকি 'পুজো। এই নিয়ে প্রবীণ- নবীন জোর তরজা , আর ৩৩ দিন !

সাবেকি পুজো না থিম বিতর্ক জোরদার বিতর্কের মাঝে ওপিনিয়ন টাইমস। এবারের পুজো কি ভাবে হবে তাই নিয়ে প্রবীণ-নবীন তরজা। সাক্ষী হিসেবে ওপিনিয়ন টাইমস ছিল হাজির।বলে রাখি কলকাতা ঝুঁকেছিল থিমে নব্বইয়ের দশকের মাঝামাঝি সাবেকিয়ানা ছেড়ে । সাবেকিয়ানাই ছিল যাদের ‘ইউএসপি’ তারাও থিমকে হাতিয়ার করে দর্শক টানছিল।এক ঘেয়ে হয়ে উঠেছে বলে সাদ বদলের তাগিদায় থিমের আবির্ভাব সর্বত্র । সাবেকি পুজোর ঘরানায় নতুন চিন্তা থিমের জন্ম দিয়েছে বেশ কয়েক বছর ধরে। তাতেও দর্শক টানতে কমতি নয়। আর সবটাই থিমের আদলে যারা করেন তারা নজর করছে অনেক বেশি। উত্তর থেকে দক্ষিণ আর পূর্ব থেকে পশ্চিম সব মিলিয়েই চলছে চুড়ান্ত প্রস্তুতি।

কালীঘাট থেকে কুমার টুলির সাবেক প্রতিমা, মেদিনীপুরের ডেকোরেটর , চন্দননগরের আলোকে হাতিয়ার করে থিম পুজোর সঙ্গে ভিড় টানার লড়াইয়ে সমানে সমানে টেক্কা দিয়ে যাচ্ছেন একদল এখনও । কলকাতার ভিড় সিংহি পার্কে ঢুকবে না, পুলিশকর্তারাও এমনটা কল্পনা করতে পারেন না । সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারে পা দেবার জায়গা এখনো পাওয়া যায় না আজও। তাহলে সাবেকি পুজোর প্রাসঙ্গিকতা এখন আছে।এটা প্রবীণ মানুষদের যুক্তি।

প্রবীণদের বক্তব্য প্রতিমা হবে মৃন্ময়ী মাতৃ রূপ। তাদের বক্তব্য এখন যে সব ঠাকুর দেখতে পাই সেগুলোকে মনে হয় না ঠাকুর কেমন যেন পুতুল পুতুল , ভক্তি আসেনা প্রণাম করতে , তার ফলে বর্তমানের থিমে যে ধরণের প্রতিমা দেখা যায় তাতে মন লাগেনা বলেই মন্তব্য করেন।

আবার নবীন দের আবদার যুগের সাথে অন্য ভাবনা ভাবলেই বা ক্ষতি কিসের। হোক না মণ্ডপের ভাবনা অন্য রকম , আসুক না অন্য পরিবর্তন তাতে ক্ষতি কি। হোক না একটু অন্যভাবে দেখা। শিল্পী তার ভাবনা অনুযায়ী যদি কাজ করেন তাতে ক্ষতি কি , পুজোর আচার বিচারের তো কোন পরিবর্তিত হচ্ছে না।সেটা তো আদি নিয়ম মেনেই কাজ হবে তাতে আপত্তি নেই।নারকেলের নাড়ু থেকে পান পাতা দিয়ে বরণ , কলা বৌ স্নান থেকে অষ্টমীর অঞ্জলি তাতেও আছি আমরা , বিসর্জনের ধুনুচি নাচ থেকে দশমীর প্রণাম সবটাই আমরা করি তাতে আমাদের আপত্তি নেই। কিন্তু যাই হোক মণ্ডপটা হওয়া চাই থিমের আদলে হয় চাই।

এই নিয়ে জপুর ব্যায়াম সমিতির শারদোৎসব প্রাঙ্গন জমে উঠেছিল দুই প্রজন্মের যুক্তি তর্ক গল্প , তবে মধ্যস্ততা করে উভয় পক্ষ সাবেকি পূজা হবে তবে থিমের আদলে। এবারের নিবেদন বাড়ীর পুজো শরিকি পুজো পাড়ার পুজো সাবেকি পুজো তাই নিয়ে ” রাজ্ বাড়িতে সাবেকি পুজো ” আর এই নিয়েই মিনিট ৩০ সের টানটান পাড়ায় আড্ডা।

বাড়ী থেকে বারোয়ারী , শুধু মাত্র ৩৩ দিন বাকি। ওপিনিয়ন টাইমস এর ক্যামেরা ঘুরছে কলকাতায় , এবছরের প্রস্তুতি কেমন হচ্ছে , সেই খবরা খবরের খোঁজে ওপিনিয়ন টাইমস । আর এই নিয়ে জমজমাট আড্ডা জপুর ব্যায়াম সমিতি , কালিন্দী থেকে । নজর রাখুন সঙ্গে থাকুন : http://www.opiniontimes.in // আমাদের ফেইসবুক পেজ : https://www.facebook.com/pg/opiniontimes.in

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: