Nation

পুলিশ কর্মীই গুলি করলেন তাঁর সহকর্মীকে

আদেও অনিচ্ছাকৃত্য হত্যা নাকি এর পিছনে লুকিয়ে অন্য কোনো রহস্য ?

@ দেবশ্রী : মাঝ রাতেই ঘটে যায় খুন। পুলিশ স্টেশনের চারতলাতেই থাকতেন সাব-ইন্সপেক্টর পদে কর্মরত ৫৭ বছরের বিজেন্দ্র সিং। ওই পুলিশ স্টেশনেই তাঁর সহকর্মী হিসাবে ছিলেন ৫৩ বছরের নরেন্দ্র পাল সিং। নরেন্দ্র মাঝেমধ্যে বিজেন্দ্র-র ঘরে যেতেন বিজেন্দ্রর বাথরুম ব্যবহার করতে। পুলিশ সূত্রের খবর গত শুক্রবার রাতেও নরেন্দ্র গিয়েছিলেন বিজেন্দ্রর চারতলার ঘরে। বাথরুম ব্যবহার করতে বিজেন্দ্রর ঘরে পৌঁছনোর পর আচমকাই নরেন্দ্রর সার্ভিস পিস্তল থেকে গুলি চলে যায়। আর তা সোজা গিয়ে লাগে বিজেন্দ্রর পেটে।

গুলি চলার আওয়াজ গিয়ে পৌঁছয় একতলায় পুলিশ স্টেশনে। কর্মরত পুলিশ কর্মীরা দ্রুত ছোটেন চারতলায়। নরেন্দ্র তাঁদের সব কথা জানান। এরপর নরেন্দ্র ও অন্য পুলিশ কর্মীরা দ্রুত বিজেন্দ্রকে নিয়ে কাছের একটি নার্সিং হোমে ছোটেন। কিন্তু গুলি লেগেছিল বিজেন্দ্রর পাকস্থলীতে। চিকিত্‍সকেরা তাঁকে পরীক্ষার পর জানান ততক্ষণে বিজেন্দ্রর মৃত্যু হয়েছে। বিজেন্দ্র মারা যাওয়ায় সেখান থেকে নরেন্দ্র প্রমাদ গোনেন।

সূত্রের খবর, বিজেন্দ্র মারা যেতেই নরেন্দ্র সেখান থেকে চম্পট দেন। এদিকে তাঁর খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। গাজিয়াবাদ যাওয়ার পথে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে যান নরেন্দ্র। তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহর জেলার বিবি নগর পুলিশ স্টেশনে। হটাৎ কেন নরেন্দ্র, বিজেন্দ্রর উপর গুলি চালালো সেই নিয়ে পুলিশ পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: