Nation

বরিস জনসন ভাঙলেন ২৫০ বছরের রেকর্ড, ভারতীয় বংশোদ্ভূত স্ত্রীকে ডিভোর্স দিলেন তিনি…

বরিস ও ম্যারিনার দুই ছেলে ও দুই মেয়েও বর্তমান।

প্রেরনা দত্তঃ বউকে ডিভোর্স দিয়েও যে ইতিহাসে নাম তোলা যায় তা দেখিয়ে দিলেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরসি জনসন।ভারতীয় বংশোদ্ভূত স্ত্রী মারিনা উইলারের সঙ্গে জনসনের বিবাহবিচ্ছেদের প্রক্রিয়ায় আইনি সিলমোহর পড়ল। আর এর সঙ্গেই ২৫০ বছর পর ব্রিটিশ ইতিহাসের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে রেকর্ড গড়লেন জনসন। প্রথম স্ত্রী অ্যালেগ্রা মোস্টাইনের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর উইলারকে বিয়ে করেন জনসন। ১৯৯৩ সালে।

করোনা যুদ্ধে জিতেই সদ্য বাবা হয়েছেন বরিস। বান্ধবীর কোলে এসেছে ফুটফুটে ছেলে।ব্রিটেনের ইতিহাসে ২৫০ বছর পর কোনও প্রধানমন্ত্রী পদে থাকাকালীন ডিভোর্স দিলেন স্ত্রীকে। প্রসঙ্গত, ১৭৬৯ সালে ব্রিটেনের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী অগাস্টাস ফিৎজরয় পদে থাকাকালীন নিজের স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়েছিলেন। তার ২৫০ বছর পর সেই রেকর্ড ভাঙলেন বরিস।কিছুদিন আগে মৃত্যুমুখ থেকে ফিরে আসা বরিসের কীর্তি ফের শিরোনামে এনেছে তাঁকে।ইউরোপীয় এক স্কুলে একসঙ্গে পড়াশোনাও করেছিলেন জনসন ও উইলারউইলারের সঙ্গে ডিভোর্সের ফলে এবার প্রেমিকা তথা বাগদত্তা ক্যারি সাইমন্ডসকে বিয়ের রাস্তায় কোনও বাধা রইল না জনসনের।

ম্যারিনার বাবা ব্রিটিশ হলেও মা ভারতীয় বংশোদ্ভূত। বরিস ও ম্যারিনার দুই ছেলে ও দুই মেয়েও বর্তমান। কিন্তু দাম্পত্য কলহের জেরে ২০১৮ সাল থেকে বিবাহবিচ্ছেদের প্রক্রিয়া শুরু হয়। ২ বছর পর ডিভোর্সের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হল।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: