West Bengal

বেআইনি অস্ত্র পাচার করতে গিয়ে ধৃত বসিরহাটের বিজেপি সচিব

দীর্ঘদিন ধরে চলছিল বেআইনি কারবার, শেষমেশ পড়ে ধরা

দেবশ্রী কয়াল : করোনা অবহেও বেআইনিভাবে অস্ত্রোপচারের ব্যবসা চলছে রমরমিয়ে। আর এবারে বেআইনি অস্ত্র রাখার অভিযোগে এক বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। গতকাল শুক্রবার রাতে বসিরহাট থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বাপিন দাস নামে এক ব্যক্তিকে। তার কাছ থেকে একটি বন্দুক ও পাঁচ রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়েছে। পুলিশের দাবি, ওই ব্যক্তি বসিরহাটের বিজেপি অফিসের সচিব।

যদিও বিজেপি এই ঘটনাকে মানতে অস্বীকার করছে। তাঁদের দাবি, প্রতিহিংসার জেরেই এমন ইচ্ছে করেই বাপিনকে ফাঁসানো হয়েছে, এই ঘটনায়। যদিও পুলিশের দাবি, এই ব্যবসা কিন্তু নতুন নয়। বরং দীর্ঘদিন ধরেই লুকিয়ে এই বাপিন অস্ত্র নিয়ে বেআইনি কারবার করত। সেই খবর পুলিশের কাছে ছিল। আর কেবল মাত্রই দেশে নয়, বাংলাদেশেও অস্ত্র পাচার করত বিজেপির এই সচিব ব্যাপিন দাস। আর সেই অভিযোগেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

বসিরহাটের ঘড়িবাড়ি এলাকায় একটি বেআইনি অস্ত্র কারবার যে চলছে সেই বিষয়ে বেশ কয়েকদিন আগেই খোঁজ পান তদন্তকারীরা। তাঁরা জানতে পারেন, একটি চক্র উত্তর ২৪ পরগনার বিভিন্ন এলাকা থেকে অস্ত্র ও গুলি নিয়ে আসে। এবং তার পাশাপাশি ভিন রাজ্য থেকেও গুলি, আগ্নেয়াস্ত্র সরবরাহ করে তারা। পরে সেগুলিই আবার তারা বাংলাদেশের একাধিক এলাকায় দুষ্কৃতীদের কাছে বিক্রি করে। আর তার পরেই তদন্তে নামে পুলিশ। সম্প্রতি বসিরহাট থেকে এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এবং সেই ব্যক্তিই পুলিশের কাছে বাপিনের নাম বলে।

এরপর বেশ কিছুদিন ধরে তার উপর লক্ষ্য রাখতে শুরু করে তদন্তকারীরা এরপর গতকাল রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। যদিও অভিযুক্ত বাপিন জানিয়েছেন, এই অভিযোগ সত্য নয়। গতকাল রাতে বসিরহাট থানার পুলিশ রাতেই তার বাড়িতে হানা দেয় সেই সময় ওই ব্যক্তি বাড়িতেই ছিলেন। ফলে সহজেই তাকে পাকড়াও করে ফেলেন তাঁরা। আজ শনিবার তাকে আদালতে তোলা হবে বলেই জানা গিয়েছে।

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: