Nation

ভক্ত আর তার সন্তান ছাড়া ঈশ্বর কি তুষ্ট হতে পারেন !

বদ্রীনাথ মন্দিরের দরজা খুললো, কিন্তু ভক্তরা অনুমতি পেলোনা প্রবেশের

পল্লবী : মানব সম্প্রদায় যখন হার শিকার করে মাথা নত করে নেয় তখন যে ঈশ্বরই একমাত্র ভরসা। প্রতিটি পুণ্য তিথিতে ভক্তরা ছুটে যান ঈশ্বর এর দরজায়। কিন্তু এই বছর কেটে গেলো কৌশিকী অমাবশ্যা তারা মা এর অপেক্ষায় রয়ে গেলেন ভক্তরা। বুদ্ধ পূর্ণিমাতেও ঘরে আরাধনা করতে পারলেন নারায়ণ দেবের। পুরীর রথযাত্রা উৎসব হবে কিন্তু ভক্তরা হয়তো অনুমতি পাবেন না। আজ ভোর সাড়ে ৪ টায় খুলে গেল বদ্রীনাথ মন্দিরের দ্বার।

মন্দিরের দ্বারগুলি খোলার সময় প্রধান পুরোহিতসহ মোট ২৮ জন উপস্থিত ছিলেন। তবে প্রবেশের অনুমতি মিললনা ভক্তদের। আজ মন্দির খোলার আগে বুধবার যোশীমঠের নরসিংহ মন্দিরে ধর্মীয় অনুষ্ঠানও অনুষ্ঠিত হয়। বদ্রীনাথ মন্দির খোলার আগে সবরকম পরীক্ষা করা হয় পুরোহিতদের। যাতে কোনো ভাবেই সংক্রমণ না ছড়ায়। তেহরি রাজপরিবারের রাজা মনুজেন্দ্র শাহ যিনি ‘বলান্দা বদ্রী’ বা ভগবান বদ্রীর কথা বলেছিলেন। তিনি ২০ এপ্রিল বদ্রীনাথ মন্দিরের দ্বারগুলি খোলার তারিখ পরিবর্তন করেন। কারণ প্রধান পুরোহিতই কোয়ারান্টিনে থাকার পর তিনি কেরালা থেকে ফিরে আসেন।

বলাই বাহুল্য, ইতিহাসে এই প্রথম মন্দিরের দ্বার খোলার তারিখ পরিবর্তন করা হয়। মন্দিরের প্রধান পুরোহিতের দু’বার করোনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার পরে দু’বারই নেগেটিভ রিপোর্ট আসায় প্রধান পুরোহিত যোশীমঠ পৌঁছন। পুরোহিত দু’সপ্তাহের কোয়ারান্টিন নিয়মও সম্পন্ন করেছিলেন। কোনো ভক্তদের দ্বারা যাতে সংক্রমিত না হয় তাই ভক্ত প্রবেশের অনুমতি এখনো মিললো না কতৃপক্ষ থেকে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে যে তারা ঈশ্বরের কাছে গিয়ে তাকে মন প্রাণ দিয়ে ডাকতে চান। ভগবান ও কি ভক্ত ছাড়া ভালো থাকতে পারে !

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: