Big Story

ভাঙড়ের পর গজলডোবা, চাষীরা একাট্টা ,হেলিকপ্টার আকাশে থাক চাষের মাটিতে নাবতে দেব না

'জয় শ্রী রাম' স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভে শুরু , হেলিপ্যাড বিতর্কে উত্তপ্ত গজলডোবা,

উত্তপ্ত হয়ে উঠল গজলডোবা ‘হেলিপ্যাড বিতর্ক’। হেলিপ্যাড কিছুতেই বানাতে দিতে চান না কৃষকরা । আজ সকাল সকাল থেকেই এলাকায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন কৃষকরা। পুলিস গেলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।স্থানীয় পুলিসের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন কৃষকরা। বিক্ষোভের মধ্যে থেকেই উঠতে থাকে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান। সাইনবোর্ড ভেঙে বিক্ষোভ দেখান কৃষকরা এর পর জেলার বড় পুলিশ বাহিনী আসে , তীব্রতা বাড়ার সাথে পুলিশ বাহিনীকে ঘিরে ফেলার অবস্থায় চলে যায় গ্রামের কৃষকরা।

রাজ্য সরকারের প্রস্তাবিত প্রকল্প গজলডোবায় পর্যটন হাব ‘ভোরেল আলো’ এখনো অধরা


বিক্ষোভের মধ্যে থেকেই উঠতে থাকে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান। সাইনবোর্ড ভেঙে বিক্ষোভ দেখান কৃষকরা। তৃণমূল কগ্রেসের নেতারাও চড়াও হলে পরিস্থিতি ভয়ানক হয়ে ওঠে। বলাবাহুল্য ২দিন আগেই হেলিপ্যাড বিতর্কে ঝামেলা হয় গজলডোবায়।কথা ছিল গজলডোবায় পর্যটন হাব ‘ভোরেল আলো’ তৈরি করেছে রাজ্য। পুজোর আগে অক্টোবরে এই প্রকল্পের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
বস্তুত ভিভিআইপিদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য গজলডোবায় মিলনপল্লি গ্রামে প্রায় ৫০ একর জমি নিয়ে হেলিপ্যাড তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্য সরকারের। প্রস্তাবিত জমিটি সরকারের, তবে সেখানে ৫০টি কৃষক পরিবারের বাস। তাঁরাই এই প্রকল্পে বাধা দিচ্ছেন। গত শনিবার কৃষকদের বিক্ষোভে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। পুলিস ৩ বিক্ষোভকারীকে আটক করে। পরে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়। যোগাযোগ রেখেছে বানগরের আন্দোনকারীরা , বিশেষ সূত্রে জানা যাচ্ছে। সরকারের কোন ভুল পদক্ষেপ বড় ঘটনা গোটা যাবার সম্ভবনা আছে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: