Big Story

ভোটগ্রহণ কেন্দ্র নেই গ্রামে, পাশের গ্রামে গিয়ে ভোট দিতে নারাজ বাঁকুড়াবাসী

৮৬ নম্বর বুথে ভোটগ্রহণ শুরু হতে দেরি হওয়ায় ভোটারদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে

নিজস্ব সংবাদদাতা: আজ দ্বিতীয় দফার ভোটের দিন অশান্তির খবর ইতিমধ্যেই শোনা যাচ্ছে চারিদিক থেকে। তার মধ্যেই ভোট বয়কটের দাবিতে সরব বাঁকুড়াবাসী। দীর্ঘ পথ পেরিয়ে তাদের অন্য গ্রামে যেতে হবে ভোট দিতে। কারণ? গ্রামে নেই ভোটগ্রহণ কেন্দ্র। আর এতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন বাঁকুড়ার তালডাংরা বিধানসভা কেন্দ্রের ভালুকবাসা গ্রামের অধিবাসীরা। এমনকি তারা ভোট বয়কটের ডাকও দেন বলে সূত্রানুযায়ী খবর। স্থানীয় সূত্রে খবর গ্রামের ছয়শোর বেশি ভোটদাতার কাউকেই পাশের গ্রামে ভোটের লাইনে দেখা যায়নি।

সূত্রের খবর, ভালুকবাসা গ্রামে কোনও ভোটগ্রহণ কেন্দ্র না হওয়ায় চৈত্রের এই প্রবল দাবদাহের মধ্যে বাসিন্দাদের ভোট দিতে যেতে হয় পাশের গ্রামে। এতে সবথেকে বেশি সমস্যার সম্মুখীন হন গ্রামের প্রবীণরা। তাই অবশেষে ‘বুথ দিন ভোট নিন’ স্লোগানকে সামনে রেখে ভালুকবাসা গ্রামের বাসিন্দারা সরব হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই তালড়াংরা বিধানসভার অন্তর্গত ৪৩ নম্বর বথের রাঙামাটি গ্রামে ভোট দিতে যাননি গ্রামের ৬০০ বাসিন্দা। তাদের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনিক স্তরে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। তাই কোনো উপায় না পেয়ে দাবি পূরণের লক্ষ্যে বাসিন্দারা ভোট বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তারা এও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন যে আগামী দিনে যদি ভালুকবাসা গ্রামে ভোট কেন্দ্র না হয় তবে তারা ভোট বয়কট জারি রাখবেন।

অন্য দিকে এদিন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর বিধানসভা কেন্দ্রের ৮৬ নম্বর বুথে ভোটগ্রহণ শুরু হতে দেরি হওয়ার অভিযোগ শোনা গেছে। কারণ হিসাবে ইভিএম বিকলের কথা জানা যাচ্ছে। সকাল সকাল ভোট দেবেন বলে বুথের সামনে সকাল থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন ভোটদাতারা। কিন্তু ভোটগ্রহণ শুরু হতে দেরি হওয়ায় তাদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে। অনেকেই আবার বিরক্ত হয়ে ভোটের লাইন ছেড়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: