Big Story

মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায় কী জানেন কারা চুরি করেন , তাহলে চোর ধরেন নি কেন ? : বিষয় – পৌর দুর্নীতি

নজরুল মঞ্চের বৈঠক থেকে কাউন্সিলরদের সামনে নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রায় স্বীকার করলেন যে রাজ্যের পৌরসভা ঘিরে চূড়ান্ত লুট হচ্ছে ও তার ভাগিদার তৃণমূল কংগ্রেস অনেকেই যারা দলথেকে চলে যাচ্ছেন।

নজরুল মঞ্চের বৈঠক থেকে কাউন্সিলরদের সামনে নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রায় স্বীকার করলেন যে , রাজ্যের পৌরসভা ঘিরে চূড়ান্ত লুট হচ্ছে ও তার ভাগিদার তৃণমূল কংগ্রেস অনেকেই যারা দলথেকে চলে যাচ্ছেন। যারা দল ছাড়লেন তারাই চুরির সাথে যুক্ত বলে দল ছেরেদিচ্ছে ।
দলীয় কাউন্সিলরদের বার্তা মমতার, কী বললেন মমতা?
১) চোরেদের আমি দলে রাখব না’ ‘যাঁরা দল ছাড়ার তাড়াতাড়ি ছাড়ুন, ,
২) “চুরি করে দলবদল করলে ছাড় পাবেন না ।”বাঁচার পথ নেই। আমরা ধরব।
৩) তাঁর কড়া হুঁশিয়ারি, “চুরি করে ধরা পড়লেই অন্য দলে চলে যাচ্ছেন। যাঁদের যাওয়ার এখনই চলে যান। তবে মনে রাখবেন দল ছাড়লেও বাঁচা যাবে না।”
৪) ‘বাংলার জাগরণ হবে , সবাই ভাল থাকবেন আর মনে রাখবেন বাংলার সংস্কৃতি বাংলার সভ্যতা, । এখন থেকে জয় হিন্দ বলা অভ্যাস করুন, বলুন জয় হিন্দ, জয় বাংলা। আর একটু রবীন্দ্রনাথকে স্মরণ করে বলবেন, জয় হে, জয় জয় জয় জয় হে’।
৫) ‘এই নির্বাচনটা কি নর্বাচন হয়েছে । হাজার হাজার, কোটি কোটি টাকার চিটিং হয়েছে। এটা ইলেকশন না চিটিংবাজি তা সবাই জানতে পারবে। আমরা আগে বুঝে গিয়েছি, অন্যেরা পরে বুঝবেন’।

৬) “চুরি করে ধরা পড়লেই লোকে অন্য দলে চলে যাচ্ছে। তাতে কি আপনি বাঁচবেন?” ফিরহাদ হাকিমকে তিনি নির্দেশ দেন, “প্রত্যেক ঘটনার আলাদা তদন্ত করা হোক। কাউকে ক্ষমা করা হবে না।”
৭) অনেকে এলাকায় ঠিকমতো কাজ করছেন না। “তৃণমূল কি রামধনু পার্টি, যখন যা ইচ্ছা করবেন। এলাকায় কাজের দায় কাউন্সিলরদেরই। কাউন্সিলররা খারাপ কাজ করলে দলের বদনাম হয়। কাউন্সিলরদের জন্য অনেক বদনাম সহ্য করেছি।”
৮) “তৃণমূলকে দুর্বল দল ভাবলে ভুল করবেন। যাঁরা অন্য দলে যাওয়ার তাড়াতাড়ি যান। ১ জন গেলে আমি ৫০০ জনকে তৈরি করব।” এদিন তিনি বলেন, “বিকাশবাবুর স্ত্রীকে টিকিট না দিয়ে ভুল করেছি।”
৯) কে একটা গ্রামসভা চুরি করে পালিয়ে গেল, তাতে আমার বয়েই গেল। আমার কিচ্ছু যায় আসে না। ১৫ থেকে ২০ কাউন্সিলর কোথাও চলে গেলে কিচ্ছু হবে না।
পচা গুলো কে নিয়ে যান বেঁচে যাব।
১০) বিশেষ করে উত্তর ২৪ পরগণায়। কয়েকটা পকেট আছে যেখানে ডেঙ্গি বেশি হয়। সেখানে এখন থেকেই অ্যাকশনটা নিতে হবে।ডেঙ্গিটা নিয়ে আপনাদের এখন থেকেই ভাল করে নামতে হবে। একটাও খারাপ ঘটনা যেন না ঘটে তার জন্য এখন থেকেই ব্যবস্থা নিতে হবে।

১১) নিজের পছন্দমতো লোককে এ বার হাতে হাতে টিকিট দেওয়া হবে।পারফরম্যান্স ভাল হলে, জেলার নেতাদের হাতে আর টিকিট নয়। সেটা দেখে এ বার টিকিট দেওয়া হবে কাউন্সিলরদের।

১২) কারণ আমরা আগে যে ভাবে গুরুত্ব দিয়ে ভোটার তালিকা করতাম,প্রত্যেকে ভোটার তালিকাটা ভাল করে করুন। কারও নাম যেন বাদ না যায়। আমাকে অনেকেই বলেছেন, তাঁর নাম নেই।

১৩) এটা ববির ডিপার্টমেন্ট।সরকারি সম্পত্তির দাম আছে। ববিকে বলব ব্যবস্থা নিতে।

১৪) পার্ক থেকে পুকুর থেকে শুরু করে সব কোনওটা বাবার নামে, কোনওটা কাকার নামে করে নিয়েছে।সরকারের সমস্ত জায়গা সরকারকে ফাঁকি দিয়ে নিজের নামে করে নিয়েছে। এদের ক্ষমা করব না।

১৫) আরও ফাঁসবে।এটা অত সহজ নয়। অন্য দলে চলে গেলেই বেঁচে যাবেন না।

১৬) চুরি করলেই পালিয়ে যায়, যে-ই চুরি করছে আর ধরা পড়ছে অন্য একটা দলে গিয়ে নাম লেখাচ্ছে।আজকাল আবার নতুন স্টাইল হয়েছে।

১৭) দোষটা দলের উপর পড়ে, ভাল কাজ হলে দলের সুনাম বাড়ে ,এলাকায় যদি ভাল কাজ না হয়। আমার অনেক কর্পোরেশন, মিউনিসিপ্যালিটি যত্ন করে কাজ করে, অনেকে খেয়ালই করে না। বাড়ি আর প্রোমোটিং ছাড়া কিছু ভাবে না তারা।

১৯) স্থানীয় উন্নয়ণের টাকা কিন্তু সাংসদ, বিধায়কদের কাছে থাকে না।কাউন্সিলররাই জনগণের কাজ করার জন্য সরাসরি হাতে টাকা পান।কাউন্সিলরদের কাছ কিন্তু মানুষের কাজ করা।

২০) মেয়র-সহ সমস্ত বন্ধুদের বলছি।উপস্থিত সমস্ত কাউন্সিলর, চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, আমার এই মিটিংয়ে আসার কথা ছিল না। তাও আপনাদের কাছে আসা। কলকাতা কর্পোরেশনের সমস্ত কাউন্সিলররা এসেছেন কি ? দুর্গাপুর মিউনিসিপ্যালিটির কাউন্সিলর আছেন কি ? অন্যান্যরা এসেছেন কি ? ভালো করে কাজ করুন নাতো ব্যাড দিয়ে দেব।

২১) বেড়াবার সময় বলেন অনেক কাউন্সিলররা কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছে , কি এমন কাজ করে যে এতো টাকা। তোমরা নজরে রাখো।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: