Big Story

মাত্র ২০ জন যাত্রী নিয়ে বাস চালানো সম্ভব নয় বলছেন মালিকরা, জট কাটাতে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি

কী দাবি তাদের জানেন?

প্রেরনা দত্তঃ করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে তৃতীয় দফার লকডাউন। তবে এবার লকডাউনে কিছু শিথিলতা দেওয়া হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক রাজ্যগুলিকেই কোন কোন ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া যাবে সেব্যাপারে আলাদা গাইডলাইন প্রকাশ করতে বলেছিল। সেই মতো রাজ্যে বেসরকারি বাস পরিষেবা নিয়ে কিছু সিদ্ধান্দের কথা জানায় রাজ্য সরকার। রাজ্যের নির্দেশিকা অনুযায়ী গ্রিন জোনগুলিতে ২০ জন যাত্রী নিয়ে বাস চালানো যাবে। কিন্তু সরকার অনুমতি দিলে কী হবে, পরিষেবা দিতে এখনই রাজি নয় বাসমালিক সংগঠনগুলি! কী দাবি তাদের?

যদি মাত্র ২০ জন যাত্রী নিয়ে বাস চালানো হয়, তাহলে জ্বালানির খরচ উঠবে কীভাবে?
জ্বালানির খরচ বাদ দিলেও, যদি ওই ২০ জন যাত্রীর মধ্যেই কারোর করোনা পজিটিভ হয়ে থাকে, তাহলে বাকি যাত্রী ও বাস কর্মীদের দায়িত্ব কে নেবে?

বাস শ্রমিকরা, যাঁরা রাস্তায় বেরোবেন এই পরিস্থিতিতে, তাঁরা যে বিপদে পড়বেন না কে বলতে পারে!
এই পরিস্থিতিতে কীভাবে বাস চালিয়ে মুনাফা পাবেন মালিকরা? বাস মালিক সংগঠন সূত্রে জানা গিয়েছে, মাত্র ২০ জন যাত্রী নিয়ে বাস চালানো তাঁদের পক্ষে সম্ভব নয় বলে তাঁরা বৈঠকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন। কারণ জ্বালানি খরচ, টায়ার ভাড়া, চালক ও কন্ডাক্টরদের বেতন দিতে যা খরচ হবে বাস চালিয়ে সেই টাকা তোলা মুশকিল। তাঁরা জানান, বাসে ১৯ জন হয়ে যাওয়ার পরে কোনও তিন জনের পরিবার এলে সবাইকে তোলা সম্ভব নয়। আবার তুললে অন্য যাত্রীদের ক্ষোভের মুখে পড়তে হতে পার। এ সবই ভাবতে হয়েছে।

একাধিক প্রশ্ন তুলে সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়েছে বাসমালিকদের সংগঠন। সেই কারণেই রাজ্য সরকার গ্রিনজোনগুলিতে ২০ যাত্রী নিয়ে বাস চালানোর কথা বললেও আদৌ এই পরিষেবা কীভাবে শুরু হবে বা মালিকরা আদৌ পথে বাস নামাবেন কিনা তা সময়ই বলবে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: