Industry & Tread

মারুতি সুজুকির ইতিহাসে এই প্রথম, গোটা মাসে একটাও গাড়ি বিক্রি হল না

মহিন্দ্রা অ্যান্ড মহিন্দ্রা সংস্থার এপ্রিল মাসে কোনও গাড়ি বিক্রি করতে পারেনি।

প্রেরনা দত্তঃ করোনার দাপটে সারা বিশ্বেই দেখা দিয়েছে মন্দা। বিশেষ করে ক্ষতি হচ্ছে ক্ষুদ্র ও ছোট শিল্প সংস্থাগুলি। করোনার থাবা বসেছে গাড়ি ব্যবসাতেও। গোটা এপ্রিল মাসে একটিও গাড়ি বিক্রি হয়নি মারুতি সুজুকির। শুক্রবার এমনটাই জানিয়েছে সংস্থা। বলা হয়েছে, সংস্থার ইতিহাসে এক মাসে একটিও গাড়ি বিক্রি না হওয়ার নজির নেই। উল্লেখ্য, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ আতঙ্কজনক হয়ে ওঠার পরে পরেই গত ২২ মার্চ থেকে উৎপাদন থেকে বিক্রি সবই বন্ধ রাখে মারুতি সুজুকি।

ভারতীয় অটো মোবাইল শিল্পে এই ঘটনা বেনজির। যে গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা ভারতের মতো দেশের ৫০ শতাংশ বাজারে একাধিপত্য কায়েম করে রেখেছে সেই কোম্পানি লকডাউনের কারণে গোটা এপ্রিলে একটাও গাড়ি বিক্রি করতে পারেনি। স্বাভাবিক সময়ে মারুতি সুজুকি প্রতি মাসে ভারতীয় বাজারে অন্তত দেড় লক্ষ গাড়ি বিক্রি করে। বিগত কয়েক মাসে আর্থিক মন্দার কারণে গাড়ি বিক্রিতে চড়াই উৎরাই দিয়েই গিয়েছে এই সংস্থা। তবে কোনও মাসে একটাও গাড়ি বিক্রি হবে না, তা ছিল কল্পনাতীত।

২০১৯ সালের শেষ দিক থেকেই এই শিল্প কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি। সেই বছরের সেপ্টেম্বর মাসেই এনিয়ে চিন্তা শুরু হয়। হিসাব বলছে, ২০১৯ সালের অগস্ট মাসে ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য চার চাকার গাড়ি বিক্রি ৪১ শতাংশ কমে যায়। শুধু মারুতি সুজুকি কোম্পানিই নয়, মহিন্দ্রা অ্যান্ড মহিন্দ্রা সংস্থার এপ্রিল মাসে কোনও গাড়ি বিক্রি করতে পারেনি। শেষ মাসে দেশীয় মার্কেটে ৭৩৩টি গাড়ি বিক্রি হয়েছে ভারতের অন্যতম নামী সংস্থার। অন্যদিকে, রয়্যাল এনফিল্ডও এ মাসে তেমন ব্যবসা করতে পারেনি। গত মাসে ৯১টি গাড়ি বিক্রি হয়েছে।

উল্লেখ্য, কেন্দ্র সরকার এই সংস্থাকে গুরুগ্রাম ও মানেসরে তাদের গাড়ি নির্মাণ কারখানায় কাজ শুরুর অনুমতি দিয়েছে। তবে এই গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা এখনও সেখানে কাজ শুরু করেনি। আর কাজ শুরু না হওয়ার অন্যতম কারণ ‘সাপ্লাই চেন’ ইন্ডাস্ট্রির থমকে যাওয়া। দেশের প্রায় দুশো আড়াইশো ছোটবড় সংস্থা রয়েছে, যারা গাড়ির অনেক যন্ত্রপাতি, সরঞ্জাম তৈরি করে। যদি বাজারে চাহিদা না তৈরি হয়, তাহলে সেই কোম্পানিগুলোর টিকে থাকাও দুষ্কর হয়ে যাবে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: