Big Story

মা কালির দিব্যি , মা শীতলার দিব্যি খাচ্ছি ‘ কাটমানি খাইনি : বাণী হাজরা জেলা TMC নেত্রী বাঁকুড়া

দিদি কি বলেছে জানিনা , আমি কাটমানি খাইনি। আমাকে ফাঁসানো হচ্ছে , কোনদিন কাটমানি হাতে নিয়েছি বলতে পারবেনা। দয়া করে আমাকে ঘেরাও করবেন না। মমতা দির জন্য আমাদের সামাজিক সন্মান নষ্ট হল।

মন্দিরে দাঁড়িয়ে বাঁকুড়ার জেলা পরিষদের সদস্যা বাণী হাজরা তিনি দেবতা ছুঁয়ে বললেন তিনি কাটমানি নেন নি। কাটমানি ফেরত দেওয়ার হুঁশিয়ারির পর বিড়ম্বনায় শাসক দল। প্রতিদিনই তৃণমূল নেতানেত্রীদের ঘিরে কাটমানি ফেরত পেতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। এই প্রথম বাঁকুড়া জেলা তে হল , বাণী হাজরা বাঁকুড়া জেলা পরিষদের সদস্য জনরোষ থেকে বাঁচতে মন্দিরে গিয়ে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের চেষ্টা করলেন।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, সরকারি ঋণ-সহ নানা প্রকল্পে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বাণী হাজরার বিরুদ্ধে। এখানে বাঁকুড়ায় এবার জয়লাভ করেছে বিজেপি।বাণী হাজরা তারপর থেকে ঘরছাড়া ছিলেন ।গত কাল বাড়ি ফিরতেই প্ল্যাকার্ড হাতে তাঁকে ঘিরে ধরেন বাসিন্দারা।গ্রামের লোকেরা দাবি করেন, ফেরত দিতে হবে কাটমানি। তৃণমূলের নেত্রী বিক্ষোভকারীদের হাত থেকে বাঁচতে মন্দিরে গিয়ে শপথ করে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করার চেষ্টা করেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লোকসভা ভোটে বিপর্যয়ের পর দলীয় বৈঠকে কাটমানি নিয়ে নেতানেত্রীদের সাবধান করেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন কাটমানি নিয়ে থাকলে ফেরত দিতে নির্দেশও দেন। আর তারপরই জায়গায় শুরু হয় বিক্ষোভ। এর পর পার্থ চ্যাটার্জী একটি সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন ” দলে ৯৯.৯৯ শতাংশ নেতাই সত্‍ ও পরিশ্রমী। কিন্তু তাতেও থামছে না জনরোষ। বিক্ষোভের পিছনে বিজেপির হাত রয়েছে বলে অভিযোগ শাসক দলের”।

এদিকে বিজেপির রাজ্য জানানো হয় আগামী ১ জুলাই কাটমানির বিরুদ্ধে রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে বিজেপি। এর পর ২ জুলাই কলকাতার হাজরা মোড়ে ‘কাটমানি ফেরত দাও’ জনসভা করতে চলেছে তারা। যদি পুলিসের অনুমোদন না পেলে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির উদ্দেশে মিছিল করার পরিকল্পনা করেছে তারা।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: