Nation

মোদীকে চিঠি ইমরানের : কাশ্মীর সমস্যা সমাধানে আলোচনায় বসুন !

আগের প্রস্তাবে ভারত আলোচনায় বসতে অস্বীকার করে কারণ , এক দিকে যখন আলোচনা অন্যদিকে তখন নিয়ন্ত্রণরেখায় সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন ও সীমান্তপার জঙ্গি হানার বার বার রক্তাত্ব হয়েছে দেশ- তাই আলোচনার আগে এসব বন্ধ হওয়া দরকার। এই যুক্তিতে ভেস্তে গেছে বিগতদিনের প্রস্তাব।

পাক বিদেশ মন্ত্রীর পর এবার খোদ প্রধানমন্ত্রী কাশ্মীর নিয়ে আলোচনা চেয়ে ভারতকে চিঠি লিখল পাকিস্তানের পক্ষ থেকে। পাক দৈনিকের খবর অনুযায়ী ভারতের বিদেশ মন্ত্রী জয়শঙ্করের সঙ্গে আলোচনা করার প্রস্তাব দিয়েছেন সে দেশের বিদেশ মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি।

এদিকে কিরকিজিস্তানে বিশকেক শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিচ্ছে ভারত সেখানে থাকছে পাকিস্তানও ,শুক্রবার ভারত সরকারি ভাবে জানিয়ে দেওয়া হয় ওই বৈঠকের অবসরে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে কোনও দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে হবে না। সম্মেলনের অন্যান্য বিষয়ের সাথে ভারত পাকিস্তানের কোন দ্বিপাক্ষিক আলোচনা হবে না বলে সরকারি মনোভাব প্রকাশ করেছে বিদেশ দফতর।

উপমহাদেশের দুই ক্যাপ্টেন : মোদী ও ইমরান

নরেন্দ্র মোদী দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরই তাঁকে ফোন করে শুভেচ্ছা জানান ইমরান খান, তিনি বলেন যে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে মৈত্রী স্থাপন করা খুব জরুরি দুই দেশের পক্ষে। উপমহাদেশে শান্তি বজায় রাখতে এই ভাবনা দুই দেশের থাকা দরকার।

আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন উরি হামলার পর পুলওয়ামা। বার বার ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক ক্রমশ তলানিতে ঠেকেছে। তারই মধ্যেই পাকিস্তানের বালাকোটে বিমান হামলা চালায় বায়ুসেনা। পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে বলে মনে করা হয়েছিল। আন্তর্জাতিক চাপের কাছে পাকিস্তান মাথা নোয়াতে বাধ্য , কারণ পাকিস্তানের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো নয় আর ইমরান খান প্রধান মন্ত্রী হবার পর দেশবাসী ও আন্তর্জাতিক মহল আসা করেছিল যে ভারত পাকিস্তান সমস্যা সমাধানের দিকে এগোবে। ইরান এক্ষেত্রে সফল হন নি ,তার ওপরে পাকিস্তানের মৌলবাদীদের চাপ ও সেই দেশের সাধারণ মানুষের প্রত্যাশার চাপ। তাই আলোচনায় বসতে চাইছে পাকিস্তান আগ্রহী ।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: