Nation

যখন এক সম্প্রদায় বলছে প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তে পরিস্থিতি বদলাবেই সেখানে অর্থমন্ত্রীর যাবতীয় ঘোষণার পরেই সেই নিয়ে তর্ক-বিতর্কে সরব একাধিক মহল

পরিযায়ী শ্রমিকেরা তাকিয়ে ছিল এই ঘোষণার দিকে কিন্তু সুরাহা কিছুই হলোনা

পল্লবী : একদিকে গতকাল দেশের উচ্চমহলের মানুষ অতন্ত্য দৃঢ়তার সাথে বলেন যে এবার পরিস্থিতি বদলাবেই কারণ হলো প্রধানমন্ত্রীর এই বিরাট অঙ্কের আর্থিক প্যাকেজ ঘোষনা। অন্যদিকে, অর্থমন্ত্রীর যাবতীয় ঘোষণার পরেই সেই নিয়ে তর্ক-বিতর্কে সরব হয়েছেন একাধিক মহল। এবার সেই বিষয় নিয়েই মুখ খুললেন কংগ্রেস নেতা পি চিদাম্বরম। এক বিবৃতিতে কংগ্রেস নেতা বলেছেন, ‘অর্থমন্ত্রী যা বলেছেন, তাতে কিছুই নেই…রোজ যাঁরা কঠোর পরিশ্রম করছেন, তাঁদের উপর নিষ্ঠুর আঘাত’।

কংগ্রেসের অন্য়তম শীর্ষ নেতা বলেছেন, ‘অর্থমন্ত্রীর ঘোষণায় কিছু পাওয়া যায়নি। লক্ষ লক্ষ গরিব, ক্ষুধার্ধ, বিপর্যস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য় কোনও ঘোষণা নেই। রোজ যাঁরা কঠোর পরিশ্রম করছেন, তাঁদের উপর নিষ্ঠুর আঘাত করা হয়েছে’। চিদাম্বরম আরও বলেছেন, ‘ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য় পরিমিত প্য়াকেজ ছাড়া আজকের ঘোষণায় আমরা হতাশ’।

প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা যা বলেছেন তা খুবই স্পষ্ট । অন্যদিকে মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর কথায় এই বিষয়টিও স্পষ্ট উঠে এসেছে যে ১৭ই মে-ই হয়তো লকডাউনের শেষ দিন নয়, শুরু হতে পারে আরো এক নতুন দফা। প্রধানমন্ত্রী মোদীর মঙ্গলবারের ২০ লক্ষ কোটি টাকার বিশেষ আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণার পর বুধবার বিকেল ৪টা নাগাদ সপারিষদ সাংবাদিক সম্মেলন করে এই প্যাকেজের প্রথম পর্যায়ের অর্থাৎ ১৫টি ঘোষণার বিশদ ব্যাখ্যা দেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। মূলত ক্ষুদ্র-ছোট-মাঝারি শিল্পের জন্য সুরাহার ঘোষণা করেছেন তিনি। পাশাপাশি, ব্যাঙ্ক ছাড়া আর্থিক প্রতিষ্ঠান, আবাসন ও সংগঠিত ক্ষেত্রের জন্য কিছু ঘোষণা করেছেন। কিন্তু ক্ষুদ্র-ছোট-মাঝারি শিল্পকে উদ্ধার করতে মূলত ব্যাঙ্কের ঋণের উপরেই ভরসা করেছেন অর্থমন্ত্রী। নিম্নসম্প্রদায়ের ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ীদের হাতে নগদ তুলে দেওয়া বা সরকারি খরচ বাড়ানোর কোনও কথা বলেননি।

তাহলে এইবার বিভিন্ন অর্থনীতিবিদদের তরফ থেকে এই প্রশ্নই উঠে আসছে যে তাহলে আখেরে লাভ টা কার ? হাতে যদি সরাসরি কোনোরূপ টাকা না ই পাওয়া যায় তবে কিভাবে বাড়বে আয়, অর্থনীতিই বা কিভাবে ঘুরে দাঁড়াবে ? এর সাথে সাথে পরিযায়ী শ্রমিকেরা প্রত্যেকেই তাকিয়ে ছিলেন এই ঘোষণার দিকে যাতে তাদের সুরাহা হয় কিন্তু তাদের জন্য কিছুই মিললনা ! দেশের অর্থনীতির মূল কান্ডারি যারা আজ তারাই অনিশ্চিয়তার পথে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: