West Bengal

রাজনৈতিক খুন বাড়ছে রাজ্যে , চিন্তিত রাজ্য পুলিশ মহল

বাড়ির উঠানে দেহ, মাথা থেঁতলে শ্বাসরোধ করে খুন বিজেপি কার্যকর্তা এগরায়

গোলক বিহারী জানা বাড়ি থেকে বেরন শনিবার সন্ধ্যায় বিজেপির মিটিংয়ে যাওয়ার কথা বলে । রাত ১০ নাগাদ ফায়ার আসেন । এরপর আবার বেরিয়ে যান।আর ফেরেন নি , রাতের অন্ধকারে কারা যেন বাড়ীর উঠানে ফেলে যান গোলক বিহারীকে ,বিজেপি কার্যকর্তাকে নৃশংসভাবে খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায়। কী কারণে বিজেপির কার্যকর্তাকে খুন করা হয়েছে তা নিয়ে ধন্দ দেখা দিয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে দেখছেন খুনের পিছনে রাজনৈতিক কারণ রয়েছে নাকি পারিবারিক অশান্তির জেরেই খুন? তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।


গোলক বিহারী জানা এগরার যড়রং গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন । সকালে বাড়ির রান্নাঘরের উঠানে ওই কার্যকর্তার নিথর রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখে তাঁর মেয়ে। গোলক বিহারী বাবু পেশায় শিক্ষক ছিলেন । প্রথমে দেখেন তার মেয়ে , যে রক্তাত অবস্থায় পরে আছেন গোলক বিহারী বাবু। তার চিত্কারে ছুটে আসেন পাড়া প্রতিবেশীরা জোর হয়ে যায় আসে পাশের গ্রাম । উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে আসে পাশের অঞ্চলে। ভোটের সময় গোলক বাবু বেশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছিলেন , নজরে ছিলেন তৃণমূলের নেতৃত্বের। এর পর প্রতিবেশীদের কাছ থেকে জানা গিয়েছে, দম্পতির মধ্যে পারিবারিক অশান্তি চলছিল।

স্থানীয়দের কথায় স্ত্রী উজ্জ্বলা জানার সঙ্গে বিয়ের আগেই ঘনিষ্ঠতা গড়ে উঠেছিল গোলক বিহারী বাবুর। দম্পতির একটি কন্যাসন্তান ও একটি পুত্রসন্তানও হয়। ইদানিং দাম্পত্য কলহ, পারিবারিক অশান্তির জেরে বেশিরভাগ সময় বাপের বাড়িতে থাকছিলেন স্ত্রী উজ্জ্বলা। তবে শনিবার বাড়িতেই ছিলেন।

বিজেপির পক্ষে জানানো হয় এই খুন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারাই করেছেন , রাজ্য বিজেপির নেতারা যাবেন গোলক বাবুর বাড়িতে। উত্তেজনা চরমে , পুলিশ তদন্ত করছে কিন্তু কাউকে এখনো পর্যন্ত গ্রেফতার করতে পারে নি । তদন্তের জন্য পুলিশ এলে গ্রাম বাসি বিক্ষোভ দেখায়।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: