West Bengal

রাজ্যে মদ বিক্রিতে নতুন নিয়মগুলি জেনে নিন…

১৫ দফা নির্দেশিকা আবগারি দফতরের

প্রেরনা দত্তঃ রাজ্যে মদ বিক্রি নিয়ে ফের একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করল আবগারি দফতর। তাতে স্পষ্ট বলা হয়েছে, একবার লাইনে দাঁড়ালে মিলবে সর্বোচ্চ ২টি বোতল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশিকা মেনেই সোমবার থেকেই রাজ্যে মদের দোকান খোলা হয়েছে। সকাল থেকেই মদের দোকানগুলির বাইরে ভিড় জমতে শুরু করে। কলকাতা শহর হোক কিংবা জেলা, ভিড়টা বাড়তেই থাকে। কেউ ইঁট পেতে, কেউ লাঠি দিয়ে জায়গা রাখে। কেউ গাছের তলায় হত্যে দিয়ে বসে। কোথাও ভিড় দোকান ছাড়িয়ে রাস্তায় নেমে পড়ে। শিকেয় ওঠে সামাজিক দূরত্ববিধি। ভিড় সামলাতে এক বেলাতেই কার্যত কাল ঘাম ছুটেছে প্রশাসনের। কোথাও কোথাও পরিস্থিতি সামাল দিতে লাঠিও চালাতে হয় পুলিশকে। আর তারপরই মদের দোকান খোলা নিয়ে ১৫ দফা নির্দেশিকা জারি করল রাজ্যের আবগারি দফতর। সেই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে—

১. কোনও কন্টেইনমেন্ট জোনে মদের দোকান খোলা যাবে না। এ ব্যাপারে আবগারি দফতরের সুপারিনটেনডেন্ট জেলাশাসকদের সঙ্গে সমন্বয় করে চলবেন।
২. স্ট্যান্ড অ্যালোন অর্থাৎ যেখানে একটি দোকান আছে সেখানেই মদের দোকান খোলা যাবে। কোনও মার্কেট কমপ্লেক্স বা শপিংমলে নয়।
৩. কোনও বার লাগোয়া দোকানে যদি ‘অফ শপ’-এর অনুমোদন থাকে তবেই তা খোলা যাবে।
৪. দেশি মদের ক্ষেত্রেও অফ শপই কেবল খোলা যাবে
৫. এলাকা ধরে কোন কোন মদের দোকান খুলবে তার তালিকা জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের দেবেন আবগারি দফতরের সুপারিনটেনডেন্ট।
৬. জেলা প্রশাসনকে জেলার আবগারি দফতর এবং স্থানীয় পুলিশের সঙ্গে সমন্বয় করে মদের দোকানের ভিড় নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
৭.পাঁচ জনের বেশি মদের দোকানের সামনে দাঁড়ানো যাবে না। এক জনের সঙ্গে আরএক জনের দূরত্ব রাখতে হবে ছ’ফুট।
৮. মদের দোকানকে ভলান্টিয়ার মোতায়েন করতে হবে যাতে বাড়তি ভিড় না হয়।
৯. একবারে এক জনকে দু’বোতলের বেশি মদ বিক্রি করা যাবে না।
১০. কাউন্টারে স্যানিটাইজার রাখতে হবে।
১১. মদের সংশোধিত দামের তালিকা দোকানের সামনে ঝুলিয়ে রাখতে হবে।
১২. দুপুর ১২টা থেকে সন্ধে সাতটা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে দোকান।
১৩.সিল করা বোতলই কেবল বিক্রি করা যাবে।
১৪. মাস্ক পরে না এলে কাউকে মদ বিক্রি করা যাবে না।
১৫. মদের হোম ডেলিভারি করা যাবে।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: