Entertainment

লকডাউনে মানুষের কথা ভেবেই তৈরী হয়ে গেল, শর্ট ফিল্ম ‘মানুষ মানুষের জন্য’

আজ প্রত্যেক মানুষ রয়েছেন সঙ্কটে, তাঁদের পাশে দাঁড়ানোই আমাদের কাজ

@ দেবশ্রী : করোনা সংক্রমণ কিছুতেই রোধ করা যাচ্ছে না। প্রতিদিন তা বেড়েই চলেছে। ইতিমধ্যে মৃত্যু সংখ্যা পেরিয়েছে ২ লক্ষের গন্ডি। আক্রান্ত হয়েছেন ৩০ লক্ষের অধিক মানুষ। ভারতেও আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৯ হাজার। মৃতের সংখ্যা প্রায় ৯০০ ছুঁই ছুঁই। এটি দ্বিতীয় দফা লকডাউনের শেষ সপ্তাহ। এর পরেও লকডাউনের মেয়াদ বাড়বে কী না তা নিয়েই রয়ে যাচ্ছে প্রশ্ন। কিন্তু এর মধ্যেই তৈরী হয়ে গেল একটি শর্ট ফিল্ম।

লকডাউনের জেরে বিপর্যস্ত পশ্চিমবঙ্গ সহ গোটা দেশের অর্থনীতি। প্রতিদিন কাজ হারাচ্ছেন বহু মানুষ, কাজ হারানোর ভয়ে দিন কাটাচ্ছেন অনেকে। প্রবল আশঙ্কার মাঝে রয়েছে মধ্যবিত্তেরা। সেই সকল মধ্যবিত্তদের সঙ্কটকে মাথায় রেখেই ছোটপর্দার পরিচিত মুখরা মিলে তৈরি করলেন কোয়ারান্টাইন শর্ট ফিল্ম ‘মানুষ মানুষের জন্য’।

চিত্রনাট্য লিখেছেন অনিন্দিতা রায়চৌধুরী। পরিচালনা করেছেন সৃজিত রায়। সম্পাদনায় রয়েছেন যিশু নাথ। টিম ‘‌মানুষ মানুষের জন্য’‌-র প্রায় প্রত্যেকেই এক সূত্রে বাঁধা। জনপ্রিয় সিরিয়াল ভুতু পরিবারের সদস্য সকলেই। এই স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবিতে অভিনয় করেছেন অনিমেষ ভাদুড়ি, সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়, দেবপ্রতিম দাশগুপ্ত, মিমি দত্ত, প্রান্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়, যুধাজিত বন্দ্যোপাধ্যায়, অনিন্দিতা রায়চৌধুরী, এলফিনা মুখোপাধ্যায়, অসীম রায় চৌধুরী, সৌরভ চট্টোপাধ্যায় ও স্নেহা চট্টোপাধ্যায়।

লকডাউনের জেরে ভুতু আবার ফিরে এসেছে ছোটপর্দায়। তবে সিরিয়াল অনেকদিন আগে শেষ হলেও এত বছর ধরে টিম ভুতু যোগাযোগ রেখে চলেছে নিজেদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রূপের মাধ্যমে। গ্রূপেই প্রথম আলোচনা হয় ঘরবন্দী অবস্থায় এরকম নতুন কিছু তৈরি করার। তারপর নানা আলোচনা, তর্ক শেষে তৈরি হয় ‘মানুষ মানুষের জন্য’।

অনিন্দিতা জানিয়েছেন যে, তাঁর চারপাশে প্রতিনিয়ত ঘটে যাওয়া বিষয়গুলোকেই শর্টফিল্মের মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। সেই সঙ্গে তাঁদের নিজেদের ক্রাইসিসও ফুটে উঠেছে সেই ছবিতে। মিমি দত্ত নিজেকে ব্যস্ত রাখছেন ঘরে বসে এরকম নানা শর্ট ফিল্ম এর কাজ করেই। প্রত্যেকেরই মনের কথা একটাই এই বিপন্ন সময়ে মানুষের পাশে মানুষকেই দাঁড়াতে হবে , কারণ ‘‌মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য’‌।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: