Economy Finance

সমস্ত ধরনের মদের সর্বোচ্চ খুচরো বিক্রয়মূল্যের উপরে ৭০% ‘বিশেষ করোনা ফি’ চাপাল দিল্লি

লকডাউনের ফলে সরকারের কোষাগারের যে দৈন্যদশা হয়েছে, মদের উপর ‘বিশেষ করোনা কর’-এর ফলে তা কিছুটা ঘুরে দাঁড়াবে।

প্রেরনা দত্তঃ মদের উপর ৭০ শতাংশ ‘বিশেষ করোনা ফি’ চাপাল দিল্লি সরকার। আজ থেকেই সেই বর্ধিত দামে মদ বিক্রি হবে। এক অভূতপূর্ব সিদ্ধান্তে রাজ্যে সমস্ত ধরনের মদের সর্বোচ্চ খুচরো বিক্রয়মূল্যের (MRP) উপরে এক ধাক্কায় ৭০ শতাংশ ‘স্পেশাল করোনা ফি’ বসাল অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকার। প্রায় ৪০ দিন পরে মদের দোকান খুলল। প্রথমদিনই বিভিন্ন শহরে এক-একটি দোকানের বাইরে রীতমতো হাজার-হাজার মানুষের লাইন লক্ষ্য় করা হয়েছে। অধিকাংশ জায়গাতেই সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং ভাঙার ঘটনা সামনে আসে।

লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বাজিলাল অনুমোদন পাওয়ার পর সোমবার রাতে মদের বর্ধিত ফি সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করে দিল্লির অর্থ দফতর। তাতে বলা হয়, ‘অফ শপ মদ বিক্রির জন্য লিখিত লাইসেন্সের মাধ্যমে সব ধরনের মদের সর্বোচ্চ দামের উপর ৭০ শতাংশ ফি কার্যকর হবে।’

সোমবার সকালে দোকান খোলার আগে থেকেই রাজধানী দিল্লির অধিকাংশ মদের দোকানের সামনেই মানুষের লম্বা লাইন পড়ে যায়। পরিস্থিতি সামলাতে লাঠি চার্জও করতে হয় পুলিশকে। যদিও তাতেও ভ্রূক্ষেপ নেই সুরাপ্রেমীদের। মদ নিয়েই বাড়ি যেতে বদ্ধপরিকর তাঁরা। কিন্তু তাতে যে সংক্রমণ ছড়ানোর সমূহ সম্ভাবনা। অবশেষে তাই দোকান খুলেও বন্ধ করে দিতে হয় দিল্লির অধিকাংশ মদের দোকান।

গত ২৫ মার্চ থেকে শুরু হওয়া লকডাউনের জেরে মদ বিক্রি বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তার জেরে দিল্লি সরকারের ৬৪৫ কোটি আয় কমেছে। গত আর্থিক বছরের সংশোধিত বাজেট পূর্বাভাসের ভিত্তিতে সেই ক্ষতির অঙ্ক পাওয়া গিয়েছে। তবে লকডাউনের ৪০ দিনে ঠিক কত টাকা ক্ষতি হয়েছে, তা জানার জন্য আবগারি দফতর রিপোর্ট তৈরি করছে বলে জানান কর্তারা।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: