West Bengal

কাজে যোগ দেওয়ার আগে হোয়াটস্যাপ-এ নিজের লোকেশন জানাতে হবে, এই নোটিস ঘিরে বিতর্ক চিকিৎসক মহলে

সম্প্রতি মেডিক্যাল অফিসারদের প্রতি সপ্তাহে ৪০ ঘণ্টা কাজ করতে হবে, এই মর্মে একটি নির্দেশিকা দেন সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

তিয়াসা মিত্র : প্রতিদিন হাসপাতালে যোগ দেওয়ার আগে নিজের উপস্থিত লোকেশন কোথায় আছে সেই জানাতে হবে হোয়াটস্যাপ-এর মাদ্ধমে। মঙ্গলবার বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালের এমনই এক নির্দেশিকা নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। চিকিৎসকদের অভিযোগ, এই নোটিস তাঁদের সম্মানহানি করছে। একে ‘স্বৈরতান্ত্রিক পদক্ষেপ’ও বলছেন তাঁরা।

গত ১৪ মার্চ দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপারিনটেন্ডেন্ট সব মেডিক্যাল অফিসারের উদ্দেশে একটি নোটিস জারি করেছেন। সেখানে লেখা হয়েছে, স্বাস্থ্য ভবনের ডিডিএইচএস-এর নির্দেশ মেনে কাজে যোগ দেওয়ার আগে প্রত্যেক মেডিক্যাল অফিসারকে নিজেদের লোকেশন হোয়াটসঅ্যাপে জানাতে হবে। সেটা কাকে ‘শেয়ার’ করতে হবে, সেই নামও উল্লেখ করে দেওয়া হয়েছে। জানানো হয়েছে, ওপিডি, অন কল সার্ভিস, ওটি সার্ভিস, এমারজেন্সি, এইচডিইউ, এসএনসিউ-এর মতো পরিষেবায় যুক্ত চিকিৎসকদের এই নিয়ম মেনে চলতে হবে। যা নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মেডিক্যাল অফিসারদের প্রতি সপ্তাহে ৪০ ঘণ্টা কাজ করতে হবে, এই মর্মে একটি নির্দেশিকা দেন সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তার পরেই এই নির্দেশিকা কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। চিকিৎসক সংগঠন সার্ভিস ডক্টর ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সজল বিশ্বাসের কথায়, ‘‘এই নোটিস মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে। অবিলম্বে এমন নোটিস প্রত্যাহার করা উচিত। চিকিৎসক কেন, কোনও পেশাতেই এমন নির্দেশিকা দেওয়া যায় না।’’ তিনি এই নির্দেশিকাকে ‘স্বৈরতান্ত্রিক’ বলে মন্তব্য করেছেন।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: