West Bengal

‘সেভ ড্রাইভ সেফ লাইফ’ কি শুধুই রাজনৈতিক প্রচার !প্রশ্ন সমালোচকদের

শহরতলিতে একের পর এক দুর্ঘটনা ,কতটা কার্যকর সেভ ড্রাইভ সেফ লাইফ, প্রশ্ন তুলছে জনতা |

প্রতিদিনের ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনা নিয়ে ওপিনিয়ন টাইমস প্রশ্ন করলো পথচলতি কিছু সাধারণ মানুষকে

১।  গড়িয়ার বাসিন্দা বাবলু দাস  বেসরকারি কর্মী, প্রতিদিন বাইক নিয়ে যাতায়াত করেন ,অথচ মাথায় হেলমেট নেই। রাস্তায় দাঁড়িয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত   ট্রাফিক পুলিশ ব্যস্ত সহকর্মীর সাথে গল্প করতে। ঐদিকে নজর নেই তার।

২। যাদবপুরের বাসিন্দা মিতালি,মেয়েকে স্কুলে দিতে যান প্রতিদিন| হেলমেট ছাড়া রাস্তায় বেড়িয়েছেন বলে জরিমানা করলো পুলিশ, অথচ তার মেয়ের স্কুলেরই আরেক ছাত্রী নার্গিস কে তার বাবা  মইদুল  প্রতিদিন হেলমেট ছাড়াই বাইকে করে নিয়ে আসছে দেখেও কেনো দেখছে না পুলিশ ? মঈদুল সংখ্যালগু সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত বলে ?প্রশ্ন মিতালীর।

৩। বড়লোক বাবার একমাত্র ছেলে কসবার  অংশু। রাস্তায় বেপরোয়া ভাবে বাইক চালিয়ে পিষে দিলো গোলপার্ক নিবাসি শেখর বাবুর সাত বছরের একমাত্র নাতি পিয়াল কে| তারপরও নাকি ট্রাফিক পুলিশকে টাকা দিয়ে মুক্তি পেলো সে, বলছে পিয়ালের বাড়ির লোক| এই ঘটনায় একটাই প্রশ্ন ফিরে ফিরে আসছে জনতার মনে সত্যিই কতটা কার্যকর ‘সেভ  ড্রাইভ সেফ লাইফ’ ! ‘সেভ  ড্রাইভ সেফ লাইফ’ কি শুধুই একটি রাজনৈতিক প্রচার? প্রশ্ন তুলছেন  সমালোচকরা।

Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: