Big Story

সৌমিত্র খাঁর বিস্ফোরক মন্তব্য : “গৌতম দেবের কথা মিলে গেল, বাঁচতে এবার আলিমুদ্দিনে যাবেন মমতা”

সৌমিত্র খাঁয়ের অভিযোগ তৃণমূলের কাটমানির জন্য বিষ্ণুপুর রেলপ্রকল্পের কাজ বন্ধ হয়ে গিয়েছে।

“মিলে গেল গৌতম দেবের কথা। বাঁচার জন্য আলিমুদ্দিনে যেতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়”।বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ মমতার জোটপ্রস্তাব জল্পনায় তৃণমূলকে নিশানা করলেন । তাঁর অভিযোগ,বিষ্ণুপুর রেল প্রকল্পের কাজ শেষ হয়নি কাটমানির জন্যই ।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লোকসভা ভোটের বিপর্যয়ের পর দলের একাংশের বিরুদ্ধে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ করেছেন।নিদানও দিয়েছেন কাটমানি নিয়ে থাকলে ফেরত দেওয়ার ।তৃণমূল নেতা কর্মীদের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছেন সাধারণ মানুষ কাটমানি ফেরতের দাবিতে । ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টায় একটি প্রেস নোট দিয়েছেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চ্যাটার্জী , বলেছেন ‘মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য বিকৃত করছে মিডিয়ার একাংশ। দলে ৯৯.৯৯ শতাংশ নেতাই সত্‍ ও পরিশ্রমী। তাঁরা উন্নয়নের সুফল মানুষের কাছে পৌছে দিতে বদ্ধপরিকর’।

সেই সৌমিত্র খাঁ এদিন তৃণমূলের বিপক্ষে ক্ষোভ উগলিয়ে দিলেন বলেন ‘ কাটমানির জন্য বিষ্ণুপুর রেল প্রকল্পের কাজে অগ্রগতি হয়নি’।জেলার তৃণমূলের নেতারা প্রকল্পের টাকা খেয়ে নিয়েছে।তাই কাজ হচ্ছে না। সৌমিত্রর দাবি এর পিছনে ভাইপোর মদত রয়েছে বলেন ।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন বুধবার বিধানসভায় জবাবি বক্তৃতায় বলেন ”সিপিএম, কংগ্রেস দেশকে ধ্বংস করবে, আমি বিশ্বাস করি না। বিজেপি সব প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করছে। ধর্মীয় উন্মাদনা ছড়াচ্ছে”। তারপর আবদুল মান্নান ও সুজন চক্রবর্তীর উদ্দেশে তিনি বলেন,”আমাদের একসঙ্গে প্রতিরোধ গড়া দরকার। বিজেপি ছাড়া বাংলার অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি সত্ ”।

রাজ্য জুড়ে জল্পনা শুরু মুখ্যমন্ত্রী এহেন মন্তব্যে , তবে কি জোটে পথে বাম- কংগ্রেস কে চাইছে। পত্র পাঠ প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছে বাম-কংগ্রেস। বিধানসভায় পরিষদীয় প্রতিমন্ত্রী তাপস রায় বলেন , সংবাদমাধ্যম মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করেছে কোন জোটপ্রস্তাব দেননি।

সৌমিত্র খাঁ বলেন জোট-জল্পনা প্রসঙ্গে ,”আমি মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে ঘর করেছি। আমি ওনাকে চিনি। উনি বিপদে পড়লে সবাইকে কাছে ডাকেন। দরকার ফুরিয়ে গেলে ছুড়ে ফেলে দেন। সিপিএম, কংগ্রেসকেও বিপদে পড়ে ডাকছেন। গৌতম দেবের কথাই সত্যি হল। উনি বাঁচার জন্য এবার আলিমুদ্দিনে যেতে চলেছেন”।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন এই বিষয়ে যদি এই প্রস্তাবে বামেরা মমতার সাথে যায় তাহলে বামেদের নৈতিক পরাজয় হবে। আর সিপিআইএম তার কমিউনিস্ট ভাবধারায় ধাক্কা খাবে। সময় এসেছে রাজনৈতিক লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার , আর তার মধ্যে থেকেই বামেদের উত্থান হবে আবারও।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: