Nation

হু এর জেনারেল ডিরেক্টর এর বিরুদ্ধে পদত্যাগের ১০ লক্ষ পিটিশন পড়ল জমা।

করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ হু, চীনকেও দিচ্ছে মদত

@ দেবশ্রী : সার বিশ্ব জুড়ে যখন ছেয়ে আছে মহামারী। করোনার জেরে প্রাণ গিয়েছে লক্ষ লক্ষ মানুষের। সংক্রমিত হয়েছেন লক্ষ লক্ষ। হু এর দেওয়া কোনো গাইডলাইনই যেন কাজে লাগছে না। তাঁরা বিবৃতি দেওয়া ছাড়া নিচ্ছে না কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ। অভিযোগ উঠছে, WHO-এর ডিরেক্টর-জেনারেল টেড্রোস আধানম করোনা রুখতে পুরোপুরি ব্যর্থ এবং চিনের প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট। আর এই অভিযোগ তুলে তাঁর পদত্যাগের দাবিতে সরব হলেন ১০ লক্ষ মানুষ।

করোনা রুখতে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে WHO-এর ডিরেক্টর-জেনারেলের বিরুদ্ধে একটি অনলাইন পিটিশন তৈরি করা হয়। যাতে লেখা ছিল, ‘গত ২৩ জানুয়ারি ২০২০ সালে টেড্রোস আধানম করোনা ভাইরাসকে মহামারি ঘোষণা করতে অস্বীকার করেন। আমরা সকলেই জানি করোনা ভাইরাসের কোনও চিকিত্‍সা নেই। সেদিনের পর মাত্র ৫ দিনে করোনার সংক্রমণ এবং মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ১০ গুণ বেড়ে যায়। আর এর দায় অনেকাংশে টেড্রোস আধানম গেব্রিয়েসুসের। তিনি এই ভাইরাসের ক্ষমতাকে গুরুত্ব দেননি। আমাদের মনে হয় টেড্রোস আধানম WHO-এর ডিরেক্টর-জেনারেলের পদে থাকার উপযুক্ত লোক নন। তাই, এখনই তাঁর পদত্যাগ করা উচিত।’ অনলাইনে এই পিটিশনটিতে এখনও পর্যন্ত ১০ লক্ষেরও বেশি মানুষ সই করেছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্তার বিরুদ্ধে চিনের প্রতি পক্ষপাতিত্বেরও অভিযোগ এনেছেন পিটিশনকারীরা। তাঁরা বলছেন,’WHO-এর তো রাজনৈতিকভাবে নিরপেক্ষ হওয়া উচিত ছিল। কিন্ত টেড্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস চিন যে মৃতের সংখ্যা বলছে, তা চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করছেন। কোনও তদন্তেরও প্রয়োজন বোধ করছেন না।’

WHO কর্তার বিরুদ্ধে চিনের প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ নতুন কিছু নয়। এর আগে খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প চিনের তাবেদারি করার অভিযোগে এনে বলেন, করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের যে সংখ্যা দেখাচ্ছে চিন, তাতে ভালোমতোই গলদ আছে। আসল তথ্য চেপে গোটা বিশ্বকে ধোঁকা দিচ্ছে তারা। আর এই ক্ষেত্রে চিনের সঙ্গে মিলে গিয়েছে WHO-ও। চিনের অনৈতিক কাজে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মদত আছে। এই অভিযোগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে দেওয়া সাহায্য বন্ধেরও সিদ্ধান্ত নেন ট্রাম্প। এবার খোদ WHO কর্তারই পদত্যাগের দাবি উঠল। কী হবে তাহলে ?

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: