Analysis

৮১ হাজার পেরিয়ে গেল মৃত্যু, বিশ্বে করোনা আক্রান্তের বিচারে শীর্ষে আমেরিকা

মার্কিন রাস্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, করোনা ভ্যাকসিন আমেরিকা হাতে পাবে এবছরের মধ্যেই।

প্রেরনা দত্তঃ বিশ্বজুড়ে ক্রমে থাবা চওড়া হচ্ছে করোনাভাইরাসের। যত দিন যাচ্ছে ততই পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে আমেরিকা, ইতালি, স্পেনের। সময় যত গড়াচ্ছে ততই মারণ ভাইরাস করোনার দাপটে লণ্ডভণ্ড হচ্ছে মার্কিন মুলুক। সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশে মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৩ লাখ ৮৫ হাজার ৮৩৪ জন। প্রাণ ঝরেছে ৮১ হাজার ৭৯৫ জনের। আর ১৬ হাজার ৪৮৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৬২ হাজার ২২৫ জন।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশের বেশিরভাগ বড় শহরগুলিতে চলছে মৃত্যুমিছিল। করোনাভাইরাসে কার্যত ছারখার হওয়া মার্কিন মুলুকে সবচেয়ে শোচনীয় অবস্থা নিউইয়র্কের। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩,৪৫,৪০৫। বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলির চেয়েও শুধু নিউইয়র্কে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেশি।বিশ্বে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৪২ লাখ ৫৬ হাজার ২৪ জন, মারা গেছে ২ লাখ ৮৭ হাজার ৩৩২ জন। আর সুস্থ হয়েছে ১৫ লাখ ২৭ হাজার ৫১৯ জন।আমেরিকায় করোনা ভাইরাস টাস্কফোর্সের শীর্ষ কর্মকর্তা অ্যান্থনি ফসি খোদ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকায় কোয়ারান্টিনে গিয়েছেন। তিনি ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসের (এনআইএআইডি) অধিকর্তা এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা।

মৃতের সংখ্যার নিরিখে শীর্ষে পৌঁছে গেছে আমেরিকা। মিচিগানে পরিস্থিতি গুরুতর। সেখানে অন্য শহরের তুলনায় মৃত্যু হার বেশি, মাত্র ৪৬ হাজার আক্রান্তের মধ্যে সেখানে সাড়ে ৪ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ফ্লোরিডায় ৪০ হাজার আক্রান্তের মধ্যে ১৭০০-এর নেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।আমেরিকার পর রয়েছে স্পেন। এদেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ৬৮ হাজার ১৪৩ জন। সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ১লক্ষ ৭৭ হাজার ৪৪৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৬ হাজার ৭৪৪ জন রোগীর। আমেরিকা ও স্পেনের পর ইতালিকে টপকে স্থান করে নিয়েছে ব্রিটেন।

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: