Big Story

কালীঘাটের পোটোপাড়ায় মুখ ভার , এখানেও কাটমানির ছায়া !

হতাশ পোটোপাড়া , অর্ডার নেই সে ভাবে। মাটির দাম আকাশ ছোয়া। সরকারি কোন সাহায্য নেই , পরবর্তী প্রজন্ম আস্তে নারাজ !

কালীঘাটের পোটোপাড়ায় একরাশ হতাশা নিয়ে কথা বললেন বিখ্যাত শীষ চন্দ্র পালের পুত্রবধূ কাজল পাল। কালীঘাটে মাটির যোগান আসতো বজবজ থেকে নৌকা করে কালীঘাটের নদীর পারে, সেখান থেকে ভ্যানে করে চলে যায় গোলায়। কিন্তু এখন পুলিশ আর নৌকা ভিড়তে দেয় না ঘাটে , পরিষ্কার করে কেউ না মুখ খুললেও এই গলি তে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ী , তাই নিরাপত্তার কারণে এখানে নিষেদ আছে নৌকা ভেড়ানো যাবে না। তার ফলে চূড়ান্ত ক্ষতির মুখে পড়েছে ১৫০ বছরের কালীঘাটের পোটোপাড়ার শিল্পীরা।সিন্ডিকের বাড়াবাড়িতে মাটির দাম একশো শতাংশও বেড়েগেছে। গত বছর ১০ কড়া মাটির দাম ছিল ৯০০ টাকা , আর এবার সেটা বজবজ দই ঘাট থেকে আন্তে ৮ কড়াই মাটির দাম ২০০০ টাকা। ফলে ঠাকুরের দাম সে ভাবে না বাড়লেও মাটির দাম কিন্তু ১০০ শতাংশ বেড়ে গেছে এর ফলে ক্ষতির মুখে কালীঘাটের পোটোপাড়া।

কেন মাটি বোঝাই নৌকা এই কালীঘাটের আসতে পারবে না তার কোন সঠিক উত্তর পেলাম না। স্থানীয় মানুষ যারা শিল্পের সাথে জড়িত তারা ভয়ে মুখ খুলতে চাইছেন না। হাব ভাবে বুঝিয়ে দিলেন যে , মুখ্যমন্ত্রীর পুলিশ এই কালীঘাটের নৌকা কিছুতেই ভিড়তে দিচ্ছে না , কিন্তু ২০১১ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত এই ঘাটেই নৌকা আসতো আর সেখান থেকেই মাটি চলে যেত পোটো দের গোলায়।কিন্তু কয়েক মাস ধরে এই মাটির নৌকো না আস্তে দিচ্ছে না , বিকল্প হিসেবে দই ঘাট থেকে মাটি আনতে বেশি ভাড়া লাগছে। কালীঘাটে মাটির যোগানের ক্ষেত্রে সিন্ডিকেটের প্রভাব আছে।সিন্ডিকেটের নির্দিষ্ট লোক আছে , ওই লোক ছাড়া কালীঘাটে কোন মাটি প্রবেশ করবে না।আর ইচ্ছে মত দাম বাড়িয়ে বেশি মুনাফা লুট করছে সিন্ডিকের লোকজনেরা ।

এর ফলে কালীঘাটের পোটোপাড়ায় অসন্তোষের ছবি, এক সহকারী শিল্পী বললেন , এতো টাকা এতো দিকে খরচ করছে সরকার কিন্তু শিল্পী দের কিছু সুবিধে পাচ্ছে না। না রাজ্য না কেন্দ্র কেওই কোনো সাহায্য করছে না। এমনটাই অভিযোগ কালীঘাট জুড়ে।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: