Nation

চিন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে কাবু ভারত, আর এখন চিনে প্রকপ কমায় ভারত থেকে সব চিনা নাগরিককে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ বেজিংয়ের

তাছারাও চিন জানিয়ে দেয় যে সব দেশ ভাবছে, করোনার জন্য চিন ক্ষতিপূরণ দেবে, তারা দিবাস্বপ্ন দেখছে।

প্রেরনা দত্তঃ চিনা পড়ুয়া, পর্যটক ও অস্থায়ী ভাবে ভারতে আসা শিল্পপতি বা শিল্পোদ্যোগীদের ফেরানোর ব্যবস্থা করছে চিন। চিনে কমেছে করোনার প্রকোপ৷ কিন্তু বেড়েছে ভারতে ৷ তাই চিনা নাগরিকদের ভারত থেকে নিজেদের দেশে নিয়ে সরিয়ে নিয়ে যাবে চিন, এমনই জানা গিয়েছে৷

চিনা দূতাবাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এই মুহূর্তে ভারতে থাকা যে সব চিনা নাগরিক দেশে ফিরতে চান, তাঁদের জন্য বিশেষ বিমানের ব্যবস্থা করা হবে। সোমবার নিজেদের ওয়েবসাইটে ম্যান্ডারিন ভাষায় একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে চিনা দূতাবাস। জানানো হয় এই তথ্য। যাঁরা ফিরতে চান, তাঁরা সেই বিশেষ বিমানের টিকিট বুক করতে পারেন বলে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য চিনের ইউহান প্রদেশ থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে কাবু ভারত৷ বিশ্বের প্রথম ১০টি করোনা আক্রন্ত দেশের মধ্যে উঠে এসেছে ভারতের নাম৷ অন্যদিকে চিনে এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রিত এই রোগের প্রাদুর্ভাব ৷যাদের করোনা সংক্রমণ হয়েছে বা ১৪ দিনের মধ্যে করোনার উপসর্গ দেখা দিয়েছে, তারা এই বিশেষ বিমানে উঠতে পারবেন না৷ তবে যারা ফিরবেন চিনে, তাদের সকলকে মানতে হবে কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম ৷ বিমানের ভাড়াও তাদেরই বহন করতে হবে বলে জানিয়েছে চিনা দূতাবাস৷

২৫শে মে জানা গিয়েছে বিশ্বে অন্যান্য আক্রান্ত দেশের মধ্যে ভারত এখন ১০ নম্বরে। এতদিন পর্যন্ত ১১ নম্বরে ছিল ভারত। এবার তালিকায় আরও এক ধাপ উপরে উঠে এল। ইরানকেও পিছনে ফেলে দিল ভারত।এই পরিসংখ্যানের কথা মাথায় রেখেই নিজের দেশের নাগরিকদের দেশে ফেরাতে চাইছে চিন বলে মনে করা হচ্ছে।

এর আগে একাধিকবার, বিশ্ব জুড়ে করোনা ছড়িয়ে পড়ার জন্য চিনকে দায়ি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই নিয়ে চলেছে কাদা ছোঁড়াছুড়ির পালাও। হোয়াইট হাউসে একটি বিবৃতিতে ট্রাম্প জানিয়েছেন, “আমরা চিনের কাজে খুশি নই”।তাই চিনের থেকে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, এমনই মনে করা হচ্ছিল। তবে চিন জানিয়ে দেয় যে সব দেশ ভাবছে, করোনার জন্য চিন ক্ষতিপূরণ দেবে, তারা দিবাস্বপ্ন দেখছে।

চিন থেকে ছড়িয়ে পড়া এই মারণ করোনাভাইরাসে রীতিমতো জবুথবু গোটা বিশ্ব৷ মোট ১৯০টি দেশে থাবা বসিয়েছে এই সংক্রমণ এবং প্রায় ৫৪ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন ৷ এর আগে ইউহান প্রদেশ থেকে ৭০০ ভারতীয়কে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়৷ কিন্তু এখন পরিস্থিতি অনেকটা বদলেছে৷ ভারতে বাড়ছে রোগের প্রকোপ, তাই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে চিন সরকার৷

Show More

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: