Weather

ভোররাত থেকেই প্রবল বৃষ্টি, ৭১ কিলোমিটার গতিতে তিন মিনিটের ঝড়ে লণ্ডভণ্ড শহর

আগামী ৩ দিনও রাজ্যজুড়ে বৃষ্টির সম্ভাবনা।

প্রেরনা দত্তঃ বাংলাদেশ-হরিয়ানায় জোড়া ঘূর্ণাবর্ত। রাজ্যে প্রবল ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি। বর্ষণে ভিজল শহর। আগামী ৩ দিনও রাজ্যজুড়ে বৃষ্টির সম্ভাবনা। পূর্বাভাস মতো কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী জেলায় শুরু হল ঝড়বৃষ্টি। বুধবার ভোর থেকেই কলকাতায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হয়। ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি হয় পার্শ্ববর্তী আরও একাধিক জেলায়।

তিন মিনিট ধরে ঝড় হয় কলকাতায় । ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ৭১ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। ২০১৮ সালে যে একটি ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড় হয়েছিল শহরে। তবে তা এক মিনিট স্থায়ী হয়েছিল। ২০১৯ সালেও এমন একটি ৮০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতিবেগের একটি ভয়ঙ্কর কালবৈশাখী।

সাধারণত ছোটোনাগপুর অঞ্চলে তৈরি হওয়া ঝড় দক্ষিণবঙ্গে তাণ্ডব চালায়। কিন্তু এ দিনের এই ঝড়ের কারণ ছিল অন্য। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ের সবথেকে বেশি স্থায়ী হওয়া ভোররাতের এই কালবৈশাখীর উৎসস্থল ঝাড়খণ্ডের ছোটোনাগপুর মালভূমি অঞ্চল ছিল না। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে এই ঝড়ের উৎপত্তি হয় উত্তরপ্রদেশ লাগোয়া নেপালে। সেখান থেকে বিশাল বড়ো পথ পাড়ি দেয়। আগামী ৪৮ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টি ও কালবৈশাখীর সম্ভাবনা রয়েছে। ওই পূর্বাভাস জানানো হয়েছে, উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টি ও ঝোড়ো হাওয়া বইবার সম্ভাবনা। দক্ষিণবঙ্গে কালবৈশাখীর সম্ভাবনা। ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার গতিতে বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া এবং হুগলিতে। কলকাতাতেও ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা।

ভোররাতের ঝড় বৃষ্টিতে লাফিয়ে নেমেছে কলকাতার পারদ। বুধাবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫ ডিগ্রি থেকে নেমে ২১.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে এসেছে। যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক ছিল। সোমবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল। মঙ্গলবার তা ৩৫ ডিগ্রি হয়ে যায়।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: