West Bengal

মনোমালিন্যের জেরে সহপাঠীর নামে ভুঁয়ো রটনা

আবারো করোনা সংক্রমণ হয়েছে, বলে রটলো ভুঁয়ো তথ্য

পল্লবী কুন্ডু : সংক্রমণের প্রথম পর্যায় থেকেই করোনা অতি মহামারী নিয়ে নানান আতঙ্কিতকর ভুয়ো তথ্য প্রকাশ হতে শুরু করে। তখনি প্রশাসন মহল থেকে এই বিষয়ের ওপর কড়া নজর দিয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটালো এক পড়ুয়া। স্কুলেরই বন্ধু আক্রান্ত হয়েছে করোনায়। এমন তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করাতেই মহা বিপদে পড়লো এই ছাত্র। কারন আদতেই ওই বন্ধুটি করোনায় আক্রান্ত হয়নি। তারই জেরে সেই স্কুলছাত্রকে ডেকে পাঠানো হল অভিভাবক সহ স্থানীয় থানায়।

সবার সামনে তাকে চাইতে হল নিঃশর্ত ক্ষমাও। জানা গিয়েছে, কাটোয়ার কাশীরাম দাস বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ওই ছাত্র তারই ক্লাসের অপর এক ছাত্রের সঙ্গে মনোমালিন্যের জেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবর ছড়িয়ে দিয়েছিল যে সে করোনায় আক্রান্ত। অভিযোগকারী নবম শ্রেণীর ওই পড়ুয়ার বক্তব্য, রাতে অনলাইন ক্লাস চলাকালীন এক বন্ধু তাকে একটি ম্যাসেজ পাঠায়। সেই ম্যাসেজেই বন্ধুটি জানায় তাদেরই ক্লাসের আরেক পড়ুয়া তার একটি ছবি পোস্ট করেছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। সেই ছবির উপরে লিখেছে, ‘এই ছেলেটি করোনা আক্রান্ত, কাটোয়াবাসী সাবধান।’ কার্যত এই বার্তাতেই তার চক্ষু চোরকে গাছ । তবে ততক্ষনে যা বিপদ ঘটার তা ঘটে গেছে।

আর বর্তমান পরিস্থিতি এমনি এসে দাঁড়িয়েছে যে, কোনো ভাবে যদি কেউ শোনে যে কেউ আক্রান্ত হয়েছে তবে তাকে নিয়ে দেদার হটাপটা শুরু হয়ে যায় এলাকা ঘিরে এক্ষেত্রেই বা বিকল্প কেন ? শেষে নাজেহাল হয়েই অভিযোগকারীর অভিভাবক পুলিশের দ্বারস্থ হয়। পুলিশ সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখে অভিযুক্ত পড়ুয়া এবং তার বাবাকে থানায় ডেকে পাঠায়। অন্য কেউ এই কাজে প্ররোচনা দিয়েছে কিনা তাও জানতে চায় পুলিশ। নিজের ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চেয়ে নেয় অভিযুক্ত ওই পড়ুয়া।

এইসব ছোট ছোট ভুল ঘিরেই এক সময় তা মহীরুহে পরিণত হয়। তাই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ একটাই, এই উঠতি বয়সে যেন সর্বদাই বাবা মা তার সন্তানদের ঠিক ভুল বিচার করতে শেখান এবং অসৎ পথ থেকে বিরত রাখেন।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Back to top button
%d bloggers like this: