Culture

করোনার ছোবলে রূপান্তরের প্রভাব বিশ্বময়: বড়িশা সার্বজনীনে তারই খোঁজ

'পালক' এর পর নতুন কোন সাজে সাজছে বড়িশা? কেমনই বা চলছে ইকো ফ্রেন্ডলি প্যান্ডেলের প্রস্তুতি? চোখ রাখলো opinion times

মধুরিমা সেনগুপ্ত : ঢাকে কাঠি পড়ে গেছে এবং শুরু হয়ে গেছে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গোৎসবের প্রস্তুতি। কোলকাতার কিছু সেরা সেরা পুজোর উদ্যোক্তারা বর্তমান পরিস্থিতিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একদম কোমরবেঁধে তৈরী। এই অবসরেই opinion times কথা বলে নিলো বড়িশা সার্বজনীন এর সেক্রেটারি অরিজিৎ গোস্বামীর সাথে।

অরিজিৎবাবু আমাদের জানিয়েছেন ৭২ বছরের এই পুজোর এবছরের থিম ‘রূপান্তর’। বিগত ছয় মাস যাবৎ জনজীবনে যে রূপান্তর ঘটেছে, যেই প্রতিবন্ধকতার সামনাসামনি হচ্ছে মানুষ সেটা নিয়েই এই থিম। মূল ভাবনায় আছেন দেবাশিস বাড়ূই এবং প্রতিমা শিল্পী হলেন পিন্টু শিকদার। এই দেড় মাস ধরে প্রতি সাতদিন অন্তর অন্তর কারিগরদের চেক আপ করা হচ্ছে এবং তাদের খাওয়াদাওয়ার দায়িত্ব ও নিয়েছে ক্লাব।সুরক্ষাবিধি মেনেই তৈরী হচ্ছে প্যান্ডেল। করা হচ্ছে অতিবেগুনি রশ্মির প্রবেশপথ। প্যান্ডেলের যাবতীয় সরঞ্জাম সেই অতিবেগুনী রশ্মির গেট দিয়ে আনা হচ্ছে। থার্মাল স্ক্রীনিং এবং মাস্ক পড়ে থাকলে তবেই মিলবে ভিতরে যাওয়ার অনুমতি। গাইডলাইন মেনে টানা থাকবে সার্কেল এবং একবারে সর্বোচ্চ ২৫ থেকে ৩০ জন মানুষ ঢোকানো হবে।

এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক কাজেও লিপ্ত এই ক্লাব। বাজেট ৫০% কমিয়ে সেই অর্থ দিয়ে সাহায্য করা হয়েছে আম্ফান এবং করোনা দুর্গতদের। প্রতি রবিবার ৭০০-৮০০ মানুষের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হচ্ছে। এসবকিছুর পর এটাই দেখার এই থিম পুজোর দৌড়ে এগিয়ে থাকবে কে, কে জিতে নেবে সেরার সেরা শিরোপা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: