Nation

ক্রমশ বাড়ছে পাখির মৃত্যুসংখ্যা, সংক্রমণ রুখতে জরুরি বৈঠকে কেন্দ্র

ইতিমধ্যেই দেশের ৯টি রাজ্যে বার্ড ফ্লুতে মৃত্যু হয়েছে বিপুল সংখ্যক পাখির

পল্লবী কুন্ডু : একেই সারা দেশে করোনা ত্রাসের জেরে নাজেহাল দেশবাসী। তার ওপর দোসর হয়েছে করোনার নতুন প্রজাতি। তা নিয়েও মাথা ব্যাথা কম নেই চিকিৎসক মহলে। আর এবার কেন্দ্রের কপালে চিন্তার ভাঁজ বার্ড ফ্লু(Bird flu)কে কেন্দ্র করে। ইতিমধ্যেই গোটা দেশ জুড়ে হাজার হাজার পাখি মারা গেছে। তবে সংক্রমণ যাতে খুব বেশি ছড়িয়ে না পরে তার জন্য অতি সক্রিয় ভূমিকায় কেন্দ্র।

ইতিমধ্যেই দেশের ৯টি রাজ্যে বার্ড ফ্লু ধরা পড়েছে। দিল্লি, মহারাষ্ট্র ছাড়াও উত্তরপ্রদেশ, কেরল, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, হরিয়ানা, গুজরাতের একাধিক জায়গায় বিপুল সংখ্যক পাখির মৃত্যু হয়েছে, যা ক্রমশ চিন্তা বাড়াচ্ছে। গত ২ দিনে মহারাষ্ট্রের পারভানিতে ৮০০ পোল্ট্রির মুরগি ও পাখি মারা গিয়েছে। তবে প্রথম দিকে, পাখি গুলির মৃত্যু ঠিক কি কারণে তা জানতে না পারলেও পরবর্তী সময়তে পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে, পাখি গুলির মৃত্যু বার্ড ফ্লু-এর কারণেই।

পাশাপাশি সংক্রমণ রুখতে পোল্ট্রির ৯ হাজার পাখিকে মেরে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সাথে মুরগি বিক্রিও আপাতত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। লাটুর ও অমরাবতীতে প্রায় ৫০০ মুরগি, হাঁসের মৃত্যুর খবর এসেছে। মৃত কাকের দেখা মিলেছে মুম্বইয়ের চেম্বুরেও। দিল্লিতে সঞ্জয় লেক, ময়ূর বিহারেও বহু পাখি মারা গিয়েছে। যে কারণে, দিল্লিতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে হাউস খাস পার্ক। উত্তরপ্রদেশের কানপুরে বন্ধ করা হয়েছে চিড়িয়াখানা। জানা যাচ্ছে, সেখানেও নাকি সব পাখিকে মেরে ফেলা হবে। তবে এরইমধ্যে প্রতিষেধক টিকার পর্যাপ্ত পরিমান আছে কিনা তা নিয়ে সোমবারই জরুরি বৈঠকে বসছেন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রকের অফিসাররা।

অন্যদিকে, বাংলায় এখনো পর্যন্ত সংক্রমণের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। ফলত কোনো পাখির মৃত্যুর খবরও মেলেনি। কিন্তু সচেতনতার খাতিরে আলিপুর চিড়িয়াখানায় পাখির খাঁচার বাইরে বাড়তি যত্ন নিচ্ছে কর্তৃপক্ষ। যাতে সেই পাখি গুলি কোনোভাবে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে দিকেই নজর রেখেছে চিড়িয়াখানার আধিকারিকরা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: